প্যাসিভ ইনকাম

ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে অনলাইন থেকে টাকা আয়

অনলাইন থেকে টাকা আয় করে বর্তমানে বাংলাদেশের লাখো মানুষ তাঁদের জীবিকা নির্বাহ করছে। অনলাইন ইনকাম (Online Income) করার মাধ্যমে অনেকে প্রতিষ্ঠিত। এটি এমন নয় যে দু-চার দিন একটু সময় দিয়েই হাজার হাজার ডলার ইনকাম করা যায়।

আসল অনলাইন থেকে ইনকাম করার জন্য থাকতে হবে বিশাল ধৈর্য্য আর ধৈর্য্য হারা হলেই আপনাকে অনলাই থেকে উপার্জনের আশা বাদ দিতে হবে । যারা মনে করেন যে, পরিশ্রম না করে শুধু ডলার ইনকাম করবেন তাঁরা সে চিন্তা বাদ ‍দিন।

বর্তমান যুগ প্রযুক্তির যুগ। প্রযুক্তির উপর মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ভাবে নির্ভরশীল। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর থেকে রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগ পর্যন্ত মানুষের এই প্রযুক্তি ও অনলাইনের ছায়ায় থাকে । মানুষের এখন তাই ইন্টারনেট নির্ভর মানসিকতা গড়ে উঠেছে । সেই সাথে কিভাবে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায় সে রাস্তাও আবিষ্কার করে ফেলেছে । অনলাইন থেকে খুব সহজেই মানুষ এখন প্রচুর ‍পরিমাণে অর্থ উপার্জন করছে। এখন এই অনলাইন ইনকাম (Online Income) এর উপরে দেশের লাখ লাখ মানুষ গভীর ভাবে নির্ভরশীল।

বাংলাদেশের ক্ষেত্রে অনলাইন ইনকামের বিষয়টি খুবেই নতুন । কিন্তু সারা পৃথিবীতে এটি শুরু হয়েছে বহু আগেই । ঘরে বসে স্বাধীনভাবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে তুলার মুক্ষম সুযোগ এটি । আজকাল ইন্টারনেট বা ফেসবুকে ঢুকলেই  অনেক প্রশ্ন দেখা যায় যে, ইন্টারনেট থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়? ঘরে বসে সহজে কিভাবে অর্থ উপার্জন করা যায়? কিভাবে খুব সহজে ইন্টারনেট থেকে কাজ পাওয়া যায়? মোবাইল দিয়ে কিভাবে ঘরে বসে টাকা আয় করা যায়?

অনলাইন থেকে টাকা আয়
অনলাইন থেকে টাকা আয়

কয়েক বছর আগেও আমরা অনলাইন থেকে  আয় এর বিষয়টা চিন্তা করতে পারতাম না মোটেও । কিন্তু সময়ের পরিবর্তনরে সাথে সাথে আজ তা সত্যি হয়েছে । সেজন্য অবশ্যই আপনাকে  অনলাইনে আয়ের পথের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে । অর্থাৎ আপনার নিজেকেও যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে। আপনি যত দ্রুত নিজেকে তৈরি করতে পারবেন তত দ্রুত আপনার আয়ের পথ সুগম হবে।

যেভাবে অনলাইন থেকে টাকা আয় করবেন

অনলাইন থেকে টাকা আয় করা আগে যতোটা কঠিন ছিল তা এখন অনেকাংশে সহজ হয়ে দাঁড়িয়েছে । অনলাইনে ইনকামের স্বপ্ন আজ হয়েছে সত্যি । আপনি দেশের যে প্রান্তেই থাকেননা কেন সেখান থেকেই আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন । আর এজন্য আপনার শুধু প্রয়োজন ডিজিটাল ডিভাইস বা প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস এবং ইন্টারনেট সংযোগ।

  1. ব্লগ সাইট
  2. ফেসবুক
  3. ইউটিউব
  4. ইন্সটাগ্রাম
  5. কন্টেন্ট রাইটিং
  6. সোশ্যাল মিডিয়া একাউন্ট ম্যানেজমেন্ট
  7. ভাষা Transcriber
  8. ইউনিক অথবা আনকমন পণ্য বিক্রয় করে
  9. পোর্টফলিও তৈরি
  10. অনলাইনে কোর্স বিক্রয়
  11. পরামর্শ দাতা হয়ে আয় করার উপায়
  12. পডকাস্ট এর মাধ্যমে অনলাইন আয় করা
  13. ফ্রিল্যান্সিং
  14. ওয়েবসাইট এবং অ্যাপ রিভিও
  15. কাস্টমার বা ক্লাইন্ট রেফার
  16. ছবি বিক্রয়
  17. ইন্টারনেট রিসার্স এবং সার্ভে কাজ
  18. Appen থেকে টাকা আয়
  19. ডাটা এন্ট্রি জব
  20. ক্লিক ওয়ার্কার জব
  21. এফিলিয়েট মার্কেটিং
  22. এনড্রোয়েড এপস থেকে ইনকাম
  23.  শর্ট লিংক শেয়ার করে
  24. গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখে
  25. ওযেব ডিজাইন,ও ডেভেলপমেন্ট শিখে
  26. ই-কমার্স সাইট থেকে আয়

ব্লগিং করে অনলাইন থেকে টাকা আয়

ব্লগিং থেকে আয় করার জন্য সময় ও পুজি দুইটি আবশ্যক । অনলাইন থেকে টাকা আয় করার জন্য ব্লগিং একটি যোগ উপযোগী সিদ্ধান্ত। এই পদ্ধতিতে বেশ ভালো অঙ্কের টাকা ইনকাম করা সম্ভব। এটি একটি ডিজিটাল নিউজ পেপার। আপনি আপনার মন মতো ইউনিক একটি বিষয় নিয়ে লিখবেন এই ব্লগ সাইটে। যার উক্ত বিষয়টি জানার প্রয়োজন সে ব্লগ সাইটে এসে তা পড়বে ।

এখন আপনি যে লেখাটি দেখছেন আর পড়ছেন এটিও একটি ব্লগ। সুতরাং বুঝতেই পারছেন এই বিষয়টা। লেখালেখি নিয়ে যদি আপনার আগ্রহ থেকে থাকে , তাহলে আপনি খুব সহজেই ব্লগ সাইট থেকে ব্লগিং এর মধ্যমে ইনকাম করতে পারেন। যে বিষয় সম্পর্কে আপনার  অভিজ্ঞতা বেশি সে বিষয় নিয়ে ব্লগিং করলে তা থেকে সবথেকে বেশি সফলতা পাওয়া যাবে।

অনলাইন থেকে টাকা আয়
ব্লগিং করে অনলাইন থেকে টাকা আয়

তাই আপনি যে বিষয় সম্পর্কে বেশি জানেন বা পারদর্শী, সে বিষয় বা নিশে  (niche) নিয়েই কাজ করতে পারেন। নিশ বলতে নির্দিষ্ট কিছু বিভাগ বোঝায় যেমনঃ  টেকনোলজি, ভ্রমন, আইন, রান্না, খেলাধুলা, জীবনী, ইত্যাদি। উদাহরণ স্বরূপ কোনো এক জায়গায় ভ্রমনে গিয়ে আপনার যে যে  অভিজ্ঞতা হয়েছিলো সেটি নিয়ে বিস্তারিত ব্লগ লিখতে পারেন।

এখন প্রশ্ন করতে পারেন যে, কোথায় লেখালেখি করবেন?

 আপনি যদি  ব্লগ সাইট নিজে বানিয়ে নিতে পারেন তাহলে সব থেকে ভালো হয় । এখন কোনো খরচ ছাড়াই ব্লগ সাইট বানানো যায়। কিভাবে ব্লগ সাইট বানাতে হয় তা জানতে ইউটিব সার্চ করেন অনেক ভিডিও পাবেন । কিন্তু ফ্রি সাইটগুলোকে মানুষ খুব কম বিশ্বাস করে।

তাই পরামর্শ থাকবে কিছু টাকা খরচ করে ডোমেইন ও হোস্টিং কিনে ব্লগিং শুরু করেন ।  আর একটি সুন্দর ও আকর্ষণীয় সাইট তৈরি করুন। এরপর সেখানে ব্লগিং শুরু করুন । এক্ষেত্রে কিছু টাকা খরচ হবে । আর ফ্রি ব্লগ সাইট খোলার ক্ষেত্রে আপনি খুব সহজেই ব্লগান ডট কম ( Blogger.com) থেকে খুব সহজেই ব্লগসাইট খুলতে পারেন।

আপনি মোবাইল বা কম্পিউটার যেকোন মাধ্যম দিয়েই কাজ করতে পারেন। যারা মোবাইল দিয়ে অনলাইন থেকে টাকা ইনকামের কথা ভাবছেন তাদের জন্যও এটি হচ্ছে সুবর্ণ সুযোগ । যদি থাকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর উপর কিছুটা ধারনা , তাহলে কিন্তু আপনি সহজেই আপনার সেই ব্লগ সাইটে  প্রচুর পরিমাণে ভিজিটর বা ট্রাফিক  আনতে পারবেন। ফলে আপনার ইনকাম  বহুগুণ বেড়ে যাবে ।

ব্লগ তৈরি করার পর আপনাকে Google Adsense এ আবেদন করতে হবে। গুগল যদি আনার আবেদন গ্রহন করে তবে আপনার ব্লগ সাইটে তাদের এড সো করাবে  আর এর মাধ্যমে আপনার সাইট থেকে ডলার ইনকাম হবে।

ফেসবুক থেকে টাকা আয়

ফেইসবুক হল একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম । আজ থেকে কিছু ‍দিন আগেও মানুষ কল্পনা করতে পারেনি যে ফেইসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যাবে । কিন্তু সময়ের সাথে সাথে সেই ধারণা পাল্টে গেছে । বর্তমানে ফেসবুক হল টাকা আয় করার একটি বৃহৎ উৎস ।

সর্বশেষ  গণনা ২০২১ অনুযায়ী দেখা গিয়েছে  বাংলাদেশের  প্রায় ৪০০৫০০০০ ( চার কোটি পঞ্চাশ হাজার) জন ফেসবুক ইউজার । বাংলাদেশের ফেসবুক ইউজারের বেশির ভাগের বয়স ১৮ বছর থেকে ২৮ বছরের মধ্যে। আপনি আপনার যে কোন ব্যবসা নিসন্দেহে শুরু করে দিতে পারবেন ফেইসবুকের মাধ্যমে ।

Please Read  Facebook’s Partner Monetization Policies

ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা সম্ভব দুই ভাবে ; এক পণ্য বিক্রির মাধ্যমে এবং অন্যটি ফেসবুক থেকে সরাসরি মনিটাইজেশন অন করার মাধ্যমে । ফেসবুকের কিছু নিয়ম-কানুন আছে যেগুলো ফলো করে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন । কিচু শর্ত আছে  যেগুলো পূরণ করতে পারলে ফেসবুক তাদের এ্যাড প্রকাশ করবে আর তা থেকে  আয় করতে পারবেন।

অনলাইন থেকে টাকা আয়
ফেসবুক থেকে টাকা আয়

যেভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করবেন

ফেসবুকের এডব্রেকস সুবিধার মাধমে আপনি আপনার ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করে বা লাইভ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন । ফেসবুক বিভিন্ন কোম্পানির এড বসাবে  আপনার অপলোড করা ভিডিওতে। আপনি সেই অ্যাড থেকে আয়ের কিছু অংশ পাবেন সেই এডে যদি কেউ ক্লিক করে তাহলেই। তবে আপনাকে কিছু শর্ত পুরুন করতে হবে এডব্রেকস সুবিধা পেতে ।

যেমনঃ

  • ৫০০০ (পাঁচ হাজার) ফলোয়ার থাকতে হবে।
  • শেষ ৬০ দিনে ৬০০০০০ (ছয় লক্ষ ) মিনিট ভিউ হতে হবে এবং ৩০,০০০ (ত্রিশ হাজার)  মিনিট ভিউ হতে হবে ৩ মিনিটের বেশী ভিডিওতে কমপক্ষে ১ মিনিট করে ।
  • ৫ টি একটিভ  ভিডিও থাকতে হবে পেইজে
  • ১৫,০০০ হাজার মানুষের নিকট শেষ ৬০ দিনে আপনার পোস্ট পৌছাতে হবে।

একই শর্ত লাইভ করে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রেও । শুধু পূর্বের তিনটি একটিভ লাইভ ভিডিও থাকতে হবে পেইজে। বি:দ্র: পেইজে কোন কপিরাইট ভিডিও থাকতে পারবে না বা কপিরাইট কিছু পোস্টও করা যাবে না।

ইউটিউব থেকে টাকা আয়

বাংলাদেশে অনেক বড় বড় ইউটিউবার আছে যারা তাদের জীবিকা নির্বাহ করে ইউটিউবিং করে । তাদের কারো কারো ইনকাম প্রতি মাসে  ৪০ থেকে ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে । আপনিও চাইলেই ইউটিউবিং করতে পারেন।সে জন্য আপনাকে ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে ছাড়তে হবে।

অনলাইন থেকে টাকা আয়

ইউটিউব থেকে টাকা আয়

প্রথম অবস্থায় আপনার ভিডিও বানাতে ক্যামেরা না থাকলেও চলবে। প্রথমে মোবাইল দিয়ে ভিডিও করে শুরু করে দিতে পারেন আপনার ইউটিউব যাত্রা। সময়ের সাথে আপনি ভালো মানের ক্যামেরার ব্যবহার শুরু করবেন । আপনার কন্টেন্ট যদি ইউনিক ও ভালো মানের হয় তাহলে খুব তাড়াতাড়িই আপনি ভিউয়ার পেয়ে যাবেন।

আপনারা যদি প্রফেশনালভাবে ইউটিউবে কাজ করতে করতে চান তাহলে অডিও ও ভিডিও এডিটিং খুবই ভালো ভাবে করতে হবে যদি না পরেন তাহলে কোর্স করে শিখতে হবে ।

সর্বনিম্ন এক হাজার সাবস্ক্রাইবার হয়ে গেলে এবং ন্যূনতম ৪০০০ ঘন্ট ভিউ টাইম হয়ে গেলে আপনি আবেদন করতে পারবেন মানিটাইজেশন এর জন্য । এর পরে প্রতিটা ভিডিওতে মানিটাইজেশন অন করে নিলেই আপনার ইউটিউব থেকে ইনকাম শুরু হয়ে যাবে।

তাছাড়াও আপনি স্পন্সারের মাধ্যমেও বিভিন্ন জায়গা থেকে ইনকাম করতে পারেন। দেখা গেলো কোনো একটা পন্যের মার্কেটিং এর জন্য কোনো একটা কোম্পানি আপনার ভিডিও তে তার ওই পন্য বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য বললো। আপনি এক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন দিতে সম্মতি প্রকাশ করলে কোম্পানী আপনাকে আপনার চাহিদামত টাকা পেমেন্ট করবে।

এই ব্লগের মাধ্যমে জানালাম যে ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে অনলাইন থেকে টাকা আয় করার উপায় কি। এবং টাকা ইনকামের আইডিয়া কি রয়েছে কিভাবে খুব সহজে মাসে লক্ষাধিক টাকা ইনকাম করা সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Discover more from Sironam Tv

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading