বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021

622
বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021? শুনতে অবাক লাগলেও বর্তমানে গেম খেলে টাকা আয় করা সম্ভব। যেকেউ গেম খেলতে ভালোবাসে। এই কারণে গেমিং থেকে টাকা আয় করার ক্ষেত্রে প্রয়োজন কৌশল এবং পরিশ্রমের। গেমিং করে টাকা আয়ের ক্ষেত্রে পরিশ্রমের ব্যাপারটি অনেকের জন্যই গেম খেলার মজাকে নষ্ট করে দেয়। তাই গেম খেলে টাকা আয় করতে চাওয়ার সিদ্ধান্ত একান্তই নিজের।

অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় তাও আবার বাংলাদেশ থেকে কথাটা শুনতে অবাক লাগলেও বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে গেম খেলে টাকা আয় করা সম্ভব। আজ আমি আপনাদের সাথে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021, টাকা ইনকাম করার গেম, game খেলে টাকা ইনকাম, গেম খেলে টাকা ইনকাম ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

আপনি গেম খেলে টাকা আয় করতে চান? টাকা ইনকাম করার বা গেম থেকে টাকা আয় করার জন্য প্রয়োজন, ইন্টারনেট কানেকশন এবং স্মার্ট ফোন, এই দুটি সাহায্যে আপনি সহজে ঘরে বসে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে গেম খেলে টাকা আয় করতে পারেন এবং এসব গেম খেলার জন্য আপনাকে কোন টাকা খরচ করতে হবে না। বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পেতে কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে গেম খেলে অর্থ উপার্জন করা যায়। হ্যাঁ অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় করা যায়। যদিও অনেক বেশি নয়, তার পরেও আপনি ট্রাই করতে পারেন। গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য সঠিক প্লাটফর্ম নির্ধারন করাটা জরুরি। সঠিক প্লাটফর্ম নির্ধারন করতে না পারলে আয় করতে পারবেন না।

এইগুলো পড়তে পারেনঃ-

অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় করার বিষয়টা কম্বানাইশন, টাইম, এবং ভাগ্যের উপর নির্ভর করে।একজন প্রফেশনাল গেমার বছরে ৬০,০০০ থেকে ৯০,০০০ হাজার ডলার পর্যন্ত আয় করে থাকে। এবং একজন প্রথম শ্রেণীর গেমার প্রতি ঘন্টায় ১৫,০০০ হাজার ডলার পর্যন্ত আয় করে। অনলাইন গেম এক ধরনের অনন্দ করার জায়গা। অনেক সময় নিজেকে রিক্রিয়েশন করার জন্য অনলাইন গেম সহযোগিতা করে।কিছু কিছু অনলাইন গেমিং প্লাটফর্ম যারা তাদের অর্থ বন্টনের হিসাব রাখে। আপনি যে কোন অনলাইন প্লাটফর্ম রিভিউ দেখে কাজ করতে পারেন।মনে রাখবেন গেম যে কোন সময় পরির্বতন হতে পারে। আপনি ভালো ফর্ম করেন কিন্তু দেখলেন সেই মোবাইল গেমটি পরর্বতীতে দিনে নাই।

কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায়

কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায়? গেম খেলতে পছন্দ করে না এমন ব্যক্তি এখন পৃথিবীতে পাওয়া প্রায় অসম্ভব। শিশু থেকে বয়স্ক সব মানুষের গেম খেলতে পছন্দ করে। লুডু, কেরাম, চেস, পাজল, একশন আরো অনেক ধরনের গেম রয়েছে ইন্টারনেটে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে এসব গেম ডাউনলোড দিয়ে, আমরা উপভোগ করতে পারি। কেমন হয়, যদি এই গেম খেলে আমরা অর্থ উপার্জন করতে পারি? ঘরে বসে অবসর সময় আমরা প্রায় গেম খেলে থাকি এবং ঘন্টার পর ঘন্টা এই গেম খেলে কাটিয়ে দিই। ভিডিও দেখে টাকা ইনকাম করার ৫টি উপায়।

অনেকের মনে প্রশ্ন থাকতে পারে যে গেইম খেলে কি সত্যি টাকা আয় হয়। হ্য অবশ্যই হয়। তবে আপনি যদি আজেবাজে এপে কাজ কাজ করেন তাহলে আপনি কখনো টাকা আয় করতে পারবেন না।তাই ভালো কোনো কম্পানি, মানে ট্রাস্টেট কোনো কম্পানির এপে গেইম খেলে আপনি দিনে সামান্য পরিমাণ কিছু টাকা আয় করতে পারবেন।তবে এই টাকা দিয়ে আপনার সংসার চালাতে পারবেন না।আপানার সামান্য হাত খরচের টাকা তুলতে পারবেন। আবার অনেক বাংলাদেশী আরনিং এপ আছে যেগুলি থেকে আপনি গেইম খেলার মাধ্যমে টাকা আয় করে সেই টাকা বিকাশের মাধ্যমে উত্তোলন করতে পারবেন।তবে বাংলাদেশী কোনো আরনিং এপ বেশি সময় ধরে পেমেন্ট করে না।আজকে যেই এপটির সাথে পরিচয় করিয়ে দিলাম সেটা থেকে আপনি নিসন্দেহে কাজ করার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন।আর সেই টাকা পেপালের মাধ্যমে উত্তোলন করতে পারবেন।তো সকলেই এপটিতে কাজ করার মাধ্যমে নিজের হাতখরচ চালাতে পারেন।

বিদ্রঃ নিচে গেম খেলে টাকা আয় করার অ্যাপসগুলো থেকে আপনি চিরস্থায়ী টাকা ইনকাম করতে পারবেন না।
বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে

কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায়

আপনি গেম খেলে টাকা আয় করতে পারেন? গেম খেলে টাকা উপার্জন করার জন্য প্রয়োজন, ইন্টারনেট কানেকশন এবং স্মার্ট ফোন, এই দুটি সাহায্যে আপনি সহজে ঘরে বসে বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে গেম খেলে সহজে টাকা উপার্জন করতে পারেন এবং এসব গেম খেলার জন্য আপনাকে কোন টাকা খরচ করতে হবে না, উল্টো এই গেম খেলে আপনি টাকা উপার্জন করতে পারেন। কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে গেম খেলে অর্থ উপার্জন করা যায়।

মিস্টপ্লে(Mistplay)

প্রথম ওয়েবসাইটটি হল মিস্টপ্লে ওয়েবসাইট, যেখানে আপনি সহজেই টাকা খরচ না করে গেম খেলতে পারবেন এবং টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে গেম খেলা অত্যন্ত সহজে কোন কষ্ট ছাড়াই আপনি গেম খেলতে পারবেন এবং টাকা আয় করতে পারবেন। এই গেম খেলতে হলে আপনার অবশ্যই একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন থাকতে হবে।

ফ্রিতে এ ওয়েবসাইট থেকে আপনি গেম খেলতে পারবেন এবং ঘণ্টায় তিন থেকে পাঁচ ডলার আয় করতে পারেন। কিন্তু, টাকা গ্রহণের নিয়ম হল শুধুমাত্র গিফট কার্ড এবং এই গিফট কার্ড এর সাহায্যে আপনি যেকোনো নির্ধারিত অনলাইন শপিং ওয়েবসাইট থেকে কেনাকাটা করতে পারেন। অতএব, অযথা গেম খেলে সময় নষ্ট না করে, গেম খেলে টাকা উপার্জন করা শুরু করুন।

পাবলিশার্স ক্লিনিং হাউস (Publishers Clearing House)

পাবলিশার্স ক্লিনিং হাউস গেম খেলে অর্থ উপার্জন করার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি সাইট। আপনি এই ওয়েবসাইটে গেম খেলতে পারেন অথবা পাবলিশার্স ক্লিনিং হাউস নামের অ্যাপটি ডাউনলোড করে ফোন থেকে সহজে গেম খেলতে পারেন। এই গেমটি খেলতে আপনার যা প্রয়োজন হবে তা হল:

  • স্মার্ট ফোন ( অ্যাপেল অথবা অ্যান্ড্রয়েড)
  • ইন্টারনেট কানেকশন অথবা ল্যাপটপ

এর কয়েকটি জিনিসের সাহায্যে আপনি সহজেই গেম খেলতে পারবেন এবং অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। এখানে বিভিন্ন গেম রয়েছে যাকে অর্থের সংখ্যা লেখা রয়েছে। কিছু গেম খেলে আপনি ৩ ডলার উপার্জন করতে পারবেন আর কিছু গেম খেলে আপনি ৫ ডলার কিংবা এর বেশি উপার্জন করতে পারেন।

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি টাকা উপার্জন করা যায় গেম খেলে। এই গেমটি আপনি ফ্রিতে খেলতে পারবেন এবং টাকা গ্রহণ করার মাধ্যম হলো ক্যাশ কিংবা গিফট কার্ড। অতএব, এই গেম খেলে আপনি কম সময়ে বেশি টাকা লাভ করতে পারবেন।

লং গেম (Long Game)

লং গেম ওয়েবসাইটে আপনি ইউনিক ধরনের গেম খেলে টাকা উপার্জন করতে পারেন। এখানে আপনি অ্যাপ ডাউনলোড করে, স্মার্টফোনের সাহায্যে ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করে, বিনামূল্যে গেম খেলতে পারেন। এই ওয়েবসাইটটিতে টাকা গ্রহণের মাধ্যমে একটু ভিন্ন, টাকা গ্রহণের মাধ্যমে টি হল:

  • টাকা ডাইরেক ব্যাংক একাউন্টে ডিপোজিট হবে।

অন্যান্য ওয়েবসাইটে আমরা দেখতে পাই যে টাকা সংগ্রহ করা যায় গিফট কার্ড অথবা PayPal এর সাহায্যে কিন্তু এই ওয়েবসাইট থেকে আপনি সরাসরি আপনার ব্যাংক একাউন্টে টাকা পেয়ে যাবেন। এজন্য আপনার একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকা খুবই প্রয়োজন না হলে আপনি আপনার টাকা পাবেন না। আপনি যত গেম খেলবেন তত টাকা পাবেন। আর এখান থেকে বেশি টাকা উপার্জন করা যায় অন্যান্য ওয়েবসাইটের তুলনায়। ডাউনলোড লিংক

৪. গিভটিং (Givting)

গিফটিং ওয়েবসাইট থেকে আপনি যে কোন এন্ড্রয়েড বা অ্যাপেল ফোন এই গেমটি খেলতে পারবেন। এই ওয়েবসাইটে প্রতিদিন দুইটি ফ্রি গেম খেলতে পারবেন এবং এরপর ০.৫ ডলার দিতে হবে গেম খেলার জন্য। সুতরাং, এই ওয়েবসাইটে আপনি প্রতিদিন দুটো ফ্রি গেম খেলতে পারবেন আর ইনকাম করতে পারবেন। ডাটা এন্ট্রি জব করার ৭টি ওয়েবসাইট

যেহেতু দুটি গেম এর পরে আপনার টাকা খরচ করতে হবে, সেই তো আপনি অন্য কোন ওয়েবসাইটে গেম খেলে টাকা উপার্জন করতে পারেন। কিন্তু দুটি ফ্রি গেম খেলে আপনি প্রতিদিন তিন থেকে পাঁচ ডলার উপার্জন করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট থেকে টাকা গ্রহণ করার নিয়ম হল ক্যাশ অথবা স্টুডেন্ট লোন পেমেন্ট। সুতরাং, আপনাকে এই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করার সময় একটু সতর্ক থাকতে হবে।

মাইপয়েন্টস (MyPoints)

মাইপয়েন্টস ওয়েবসাইটে আপনি যেমন ভিডিও দেখে টাকা উপার্জন করতে পারবেন তেমনি আপনি গেম খেলেও উপার্জন করতে পারবেন। এই ওয়েবসাইট থেকে গেম খেলে টাকা উপার্জন করা অনেক সহজ এবং প্রতি ঘন্টায় আপনি দুই থেকে চার ডলার ইনকাম করতে পারবেন এবং সম্পূর্ণ বিনামূল্যে এই গেমগুলি আপনি খেলতে পারবেন। এই গেমগুলি আপনি যেখানে খেলতে হবে পারবেন তা হল: 

  • আইওএস (iOS)
  • অ্যান্ড্রয়েড ( Android)

এ ওয়েবসাইট থেকে টাকা গ্রহণ করার নিয়ম হলো, PayPal এবং গিফট কার্ড। এই ওয়েবসাইট থেকে গেম খেলে এবং ভিডিও দেখে আপনি অল্প কিছু টাকা উপার্জন করতে পারেন। সুতরাং, আপনার অবসর সময়কে কাজে লাগাতে এই ওয়েবসাইটে গেম খেলতে পারেন।

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে
গেম খেলে টাকা আয়

গেম খেলে কিভাবে ইউটিউব থেকে আয় করা যায়

ইউটিউবে গেম খেলা যায় না। তবে গেম খেলার ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করার মাধ্যমে প্রচুর ডলার ইনকাম করা সম্ভব। বর্তমানে আমাদের আশেপাশের অনেকেই ইউটিউব গেমিং চ্যানেল খেলার মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছে। অনেকে আবার ইউটিউবিং ক্যারিয়ার হিসেবে নিয়েছে। অর্থাৎ যারা গেম খেলায় পারদর্শী তারা বিভিন্ন ধাপ অতিক্রম করার টিউটোরিয়াল স্ক্রিন রেকর্ড করার মাধ্যমে সেসব ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করে প্রচুর পরিমাণে ভিউজ অর্জন করছে এবং সেসব ভিডিও মনিটাইজেশন করার মাধ্যমে তারা ঘরে বসে মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছে। আমাদের ওয়েবসাইটে এ সংক্রান্ত আর্টিকেল প্রকাশ করা হয়েছে। আপনি চাইলে এখান থেকে তা দেখে নিতে পারেন।

আর্টিকেল লিখে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে 2021

আপনি আপনার নিজের নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে গেমের রিভিউ লিখে ব্লগের মাধ্যমে অনলাইন থেকে হাজার ডলার মাসে আয় করে নিতে পারেন। আপনি চাইলে কোন প্রকার ইনভেস্টমেন্ট ছাড়াই  ফ্রিতে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে আয় করা শুরু করতে পারেন। তবে আপনি চাইলে ডোমেইন-হোষ্টিং ক্রয় করে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন। ওয়েবসাইটে রিভিউ লেখার আগে আপনাকে  অবশ্যই  যে গেমস নিয়ে লেখালেখি করবেন গেমের ভালো খারাপ দিকগুলো সম্পর্কে ধারনা থাকতে হবে।  রিভিউ লেখার মাধ্যমে আপনার ব্লগে গেমসের ভালো-মন্দ দুই দিকই তুলে ধরতে হবে।
গেমিং ওয়েবসাইটগুলোতে অনেক ভালো পরিমাণে ট্রাফিক থাকে। কাজেই আপনি যদি জানেন সম্পর্কে অনেক ভালো জানেন এবং সেগুলো নিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে আপনি খুব সহজেই লেখালেখি করে আয় করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই কনটেন্ট রাইটিং সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। কারণ আপনি যদি গেমের বিষয়ে সাজিয়ে গুছিয়ে লিখতে না পারেন তাহলে একজন পাঠক আপনার রিভিউটি পড়তে চাইবে না। 

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে
গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে

ডায়মন্ড কেনা বেচা করে ইনকাম

আপনারা যারা ফ্রি ফায়ার গেম এর সাথে সংযুক্ত হয়েছেন তাঁরা যানেন ডলার ব্যবহার করে ডায়মন্ড কিনতে হয়। তবে বাংলাদেশ থেকে ডলার কেনার জন্য যে কার্ড বা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন তা পাওয়া যায় না। এর বিকল্প হিসেবে অনেকে রয়েছে যারা ডলার কেনা বেচার সার্ভিস দিয়ে থাকেন। অর্থাৎ এক্সপার্ট লেভেলের মানুষজন তাদের ব্যাংক একাউন্ট ব্যবহার করে ডায়মন্ড কিনে তা বিক্রি করে।

আমাদের পরিচিত অনেকেই রয়েছে যারা কম দামে ডায়মন্ড কিনে তা বাংলাদেশের মানুষের কাছে বেশি দামে বিক্রি করে। যারা ডায়মন্ড কিনে তারা অনেক টাকা লাভ করে। এভাবে আপনি যদি ডায়মন্ড কেনা বেচার ব্যবসা শুরু করতে পারেন এবং ভালো পরিমাণে গেম অ্যাডিক্টেড ছেলে মেয়ে জোগাড় করতে পারেন তাহলে খুব ভাল প্রফিট করতে পারবেন বলে আশা করি।

Big Time Cash- বিগ টাইম ক্যাশ

এই গেম অ্যাপ এর নাম দেখে আপনি অবশ্যই চমকে গেছেন। চমকানোর কিছু নেই আপনি যদি ভেবে থাকেন অনলাইনে গেম খেলে আপনি ধনী হবেন এটা আপনার ভুল ধারণা। কেননা এই অ্যাপ গুলো তাদের এড রেভিনিউ থেকে সামান্য কিছু আপনাকে প্রদান করে থাকে।

আপনি কাউকে রেফার করলে আপনাকে কিছু টাকা দেয় আবার আপনি তাদের নির্দিষ্ট ভিডিও বিজ্ঞাপন দেখে টাকা আয় করতে পারেন। তাহলে বুঝতে পারছেন যে অ্যাপ গুলো থেকে আপনি কিভাবে টাকা আয় করবেন। এই গেমটিতে লাকি টিকেট সিস্টেম দেয়া হয়েছে। আপনি যত বেশি গেম খেলবেন আপনাকে তত বেশি টিকেট দেওয়া হবে। লাকি ড্রয়ের মাধ্যমে আপনাকে টিকেট জিততে হবে এবং আপনি যত বেশি গেম খেলবেন আপনার টিকেট পাওয়া ও টিকেট জয়ের সম্ভাবনা তত বেশি। 

এই অ্যাপ থেকে আপনি সর্বনিম্ন 10 ডলার পেমেন্ট উইথড্র করতে পারবেন। আপনার একাউন্টে 10 ডলার হলে আপনি পেপালের মাধ্যমে টাকা আপনার ব্যাংক নিয়ে আসতে পারবেন। গেম থেকে টাকা আয় করাতে গেম টি ডাউনলোড করে গেম খেলতে থাকুন, ক্রিকেট জামাতে থাকুন এবং মোবাইল গেম খেলে টাকা আয় করতে থাকুন।  

Bulb Smash app – বাল্ব স্মাশ অ্যাপ

 অনলাইনে মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয় করা যায় এমন অ্যাপ সমূহের মধ্যে এই গেমটি কিছুটা ভিন্ন রকম ও মজার। মূল বিষয়টি হচ্ছে লাইট ভাঙ্গা, মাথা লাগিয়ে লাইট ভাঙ্গেন এবং কয়েন জমা করতে থাকুন। এই কাজটি করতে হবে প্রথমে অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে, ইন্সটল করতে হবে। নিজের ফেসবুক অথবা জিমেইল অ্যাকাউন্ট দিয়ে অ্যাপটি  লগইন করে নিতে হবে।  

আপনি গেম খেলে যতটা না টাকা আয় করতে পারবেন তার থেকে বেশি আয় করতে পারবেন গেমটি অন্যকে রেফার করার মাধ্যমে। আপনারা লিংকে প্রবেশ করে কেউ গেমটি ডাউনলোড করলে আপনি 70 টাকা পর্যন্ত কমিশন পেতে পারেন। 

বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
বাংলাদেশে গেম খেলে টাকা আয়

বাংলাদেশে থেকে গেম খেলে টাকা আয়

বন্ধুরা আমি আপনাদের আগেই বলেছি অনলাইনে গেম খেলে আপনি খুব বেশি টাকা আয় করতে পারবেন না সত্যিকার অর্থে। গেম খেলে টাকা আয় নামে বাংলাদেশের কিছু অসুস্থ প্রতিযোগিতা চলমান রয়েছে। ইউটিউবে সার্চ দিলে অথবা গুগোল এ সার্চ দিলে  দেখা যায় যে অনেকে অনেক বড় বড় অঙ্কের টাকা গেম খেলে কামিয়েছেন বলে প্রচার করছে।

এইগুলো পড়তে পারেনঃ-

আসলে আমাদের কে কিভাবে খুব সহজে ধোকা দেওয়া যায় এবং আমরা সহজে ধোকায় পড়ে যাই। কিছু লোক আমাদের ক্ষতি করছে নিজেদের পকেট ভরার জন্য। যদি টাকা আয় করা এত সহজ হতো মোবাইলে গেম খেলে তবে বাংলাদেশের লক্ষ লক্ষ বেকার যুবক এই কাজটি করতো।

গেম খেলে টাকা আয় করার উপায়

আমি আপনাদের উপরে যে কয়েকটি অ্যাপ সম্পর্কে বলেছি ওই কয়েকটি ব্যতীত আপনি অন্য কোন অ্যাপস খেলে প্রতারিত হবেন না। কেননা লোভনীয় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এখন অনেকেই সাধারণ মানুষের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয় করুন বলে।

Previous articleওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১ বাংলাদেশে কত টাকা ?
Next articleএকসাথে ৫টি স্যাটেলাইট মহাশূন্যে পাঠালো চীন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here