অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্টের উপায়

অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্টের উপায়

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার উপায়

মোবাইলে ভিডিও গেম খেলে টাকা আয় বিষয়টা শুনতেও অনেকের কাছে হাস্যকর মনে হতে পারে।টাকা ইনকাম app, গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে ইত্যাদি কিন্তু অনেকেই আবার মোবাইলে লুডু খেলে টাকা আয় করার জন্য বিভিন্ন উপায় খুঁজে বেড়ান। এ ব্যাপারটি তাদের জন্য আশ্চর্যবোধক নাও হতে পারে। কিন্তু যারা লুডু খেলে মোবাইলে অনলাইনে টাকা আয় করার চিন্তা মাথায় নিয়ে ঘুরে বেড়ায় তাদের জন্য আজকের এই পোস্টে আলোচনা করবো কোন কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায়। এছাড়াও আমি মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয় করার কয়েকটি উপায় নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করব। মোবাইলে গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য কিছু গেমিং অ্যাপস এর সম্বন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করব।

আমরা পূর্বের আর্টিকেলে গেম খেলে টাকা আয় করার কিছু অস্থায়ী পদ্ধতির কথা আপনাদেরকে জানিয়েছিলাম। কিন্তু আজকের এই পোস্টে আপনাদেরকে আমি জানাবো আপনি কিভাবে চিরস্থায়ী গেম খেলে কিভাবে মোটামুটি ভালো পরিমাণ একটা অর্থ উপার্জন করতে পারেন। কিন্তু এই উপার্জনের জন্য আপনার অবশ্যই প্রয়োজন হবে সামান্য পরিশ্রম ও ভালো ধৈর্যশক্তি । আপনার যদি এই দুটি জিনিসের সমস্যা না হয় তাহলে আপনি আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়তে পারেন।

আসলে টেকনোলজির উন্নতি হওয়ার সাথে সাথে অনলাইনে ভিডিও গেম খেলার প্রবনতা বেড়েই চলেছে। এক সময় কম্পিউটার গেমগুলো শুধুমাত্র অফলাইনে বসে নিজে নিজে খেলা হত। গেম গুলো সাধারণত বাটন মোবাইলেও খেলা হতো যেমনঃ সাপ, সেটুকু ইত্যাদি । অফলাইনে গেম খেলার আগ্রহ পূর্ব থেকেই ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে সেটি অনলাইনে টিমওয়ারী খেলার পদ্ধতি আবিষ্কার করে। এখন অধিকাংশ ভিডিও গেম অনলাইনে বিভিন্ন টিমে বিভক্ত হয়ে খেলা হয়। এ ধরনের গেম এর মধ্যে PUBG, Free Fire গেম বেশ জনপ্রিয় অনলাইন গেম

গেম খেলে টাকা আয় করুন

যারা গেম খেলতে পছন্দ করেন তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি। যারা শখের বসে গেম খেলেন তাদের জন্য আলোচনা করবো কোন কোন গেম খেলে আপনি মোবাইলে টাকা আয় করতে পারবেন। ভিডিও গেম খেলা অনেকের জন্য শখের কাজ হোক সেটা অনলাইনে বা অফলাইনে। সাধারণত যারা সবচেয়ে বেশি গেমস খেলতে পছন্দ করেন তাদের মধ্যে স্কুল কলেজের ছাত্র- ছাত্রীর পরিমাণ সবচেয়ে বেশি। আবার এমন ধরনের অনেক শিক্ষার্থী রয়েছে গেম খেলার জন্য কলেজের টাইম ক্লাস ফাকি দিয়ে মোবাইলের ভিডিও গেমসের মধ্যে ডুবে যায়।

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার উপায়
গেম খেলে টাকা আয়

আপনি হয়তো বা লক্ষ্য করতে পারেন যে, মোবাইলের ভিডিও গেমের কারণে আজকাল ছেলে মেয়েদের মাঠে খেলাধুলার পরিমাণ অনেক কমে গেছে। আজকাল পথে-ঘাটে বের হলে দেখা যায়, ছেলেমেয়েরা ভিডিও গেমসের প্রতি খুব বেশি আসক্ত হয়ে পড়েছে। কানের মধ্যে হেডফোন লাগিয়ে একজন আরেকজনের সাথে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ করার চেষ্টা করে যাচ্ছে গেম খেলার বিষয়ে। আর এ সকল গেমের কারণে ছেলে-মেয়েরা বাস্তব জীবন থেকে দূরে সরে যাচ্ছে। বিষয়টা অনেকটা বিরক্ত লাগার মতই। মাঝে মাঝে মনে হয় এই সকল ছেলে মেয়েরা স্কুল-কলেজ ফাঁকি দিয়ে কেন শুধু গেম খেলে বাবার টাকা নষ্ট করছে। 

বর্তমানে প্রযুক্তির যুগে অনলাইনে ভিডিও গেম খেলার প্রবণতা দিন দিন বেড়েই যাবে। কিন্তু এতে ছেলে মেয়েদের শুধু অপব্যয় ছাড়া আর কিছুই নয়। তাই আজকে আপনাদের সাথে আমি আলোচনা করব ভিডিও গেম খেলে কিভাবে সামান্য পরিমাণ অর্থ উপার্যন করা যায়। আপনার বাবার টাকা নষ্ট এর হাত থেকে আপনি কিছুটা হলেও বাঁচাতে পারবেন। এমনকি আপনার পকেট খরচ যোগাতে পারবেন। 

গেম খেলে টাকা আয় করতে পারবেন যারা 

যারা অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় করতে চান তাদের জন্য প্রায়ই একটা কথা বলি অনলাইন আয় এতটা সহজ উপায় নয়। কিন্তু আবার সেটা বলিনি যে এটা তেমন কঠিন কোন কাজ। আপনি যে কোন মাধ্যম বা উপায় অবলম্বন করে অনলাইনে টাকা আয় করতে চাইলে আপনার অবশ্যই প্রয়োজন হবে দক্ষতার। দক্ষতা বা অভিজ্ঞতা ছাড়া কোন কাজ করলে সেটা থেকে ভাল ফলাফল আশা করা সম্ভব নয়। হোক সেটা অনলাইন বা অফলাইন, ছোট বা বড় যেকোনো ধরনের কাজ। ঠিক তেমনভাবে একটি বিষয়ে ভালো দক্ষতা ছাড়া অনলাইন থেকে টাকা আয় করা সম্ভব হবে না।

আপনাকে গেম খেলে টাকা আয় করতে হলে অবশ্যই আপনার গেম বিষয়ে অনেক ভালো অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। যদি কেউ আপনাকে অনলাইনে আয় করার লোভনীয় অফার দেয় তাহলে আপনি তার ফাঁদে পা দিবেন না। আপনি তার অফারকে বিশ্বাস না করে আপনার কাজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন। আপনার কাজের প্রতি যদি আপনার অগাধ বিশ্বাস থাকে তাহলে আপনি অনলাইন আর অফলাইন নাই যে কোন কাজে আপনি ভাল করতে পারবেন।

আমরা যেহেতু আজ অনলাইনে গেম খেলে কিভাবে টাকা আয় করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করছি। তাই আমরা শুধু আজকে গেম খেলে টাকা আয় সার্ভিসটি আপনাকে দিব। আর এই সার্ভিসটি হবে দীর্ঘস্থায়ী এটা কোন ক্ষণস্থায়ী বা অস্থায়ী পদ্ধতি নয়।  আপনাকে অনলাইনে আয় করতে হলে প্রথমেই আপনার ধৈর্য শক্তি ও পরিশ্রম প্রয়োগ করতে হবে।

অনলাইনে আয় করতে আরও পড়ুন

·               কিভাবে বিকাশে টাকা আয় করা যায়
·             মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
·             কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায় 
·              গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট 

গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য যা লাগবে 

গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য পরিশ্রম ও ধৈর্যশক্তির কথা বাদই দিলাম। কিন্তু এছাড়াও আরো কিছু যন্ত্রপাতি প্রয়োজন হতে পারে আপনার। একটি ভালো গেমিং এন্ড্রয়েড ফোন অথবা গেমিং কম্পিউটার দুটির একটি হলেই হবে। একটি ভালো মানের HD সাপোর্টেড স্ক্রিন রেকর্ড অ্যাপ্লিকেশনটির মাধ্যমে আপনার মোবাইল বা কম্পিউটার স্ক্রিন রেকর্ড করা হবে। এছাড়া অনলাইনে গেম খেলার জন্য প্রয়োজনীয় ইন্টারনেট ডাটা প্যাক। এছাড়া আপনার গেম খেলার অভিজ্ঞতা ছাড়া আর কিছুই প্রয়োজন হবে না।

উপরোক্ত বিষয়গুলো পড়েন এতক্ষণ পর্যন্ত আপনি বুঝে গেছেন যে, গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য আপনাকে একজন বাজে গেমার হতে হবে, বেশি বেশি খেতে হবে। দুঃখিত একটু মজা করলাম আপনাদের সাথে। কারণ গেম খেলার অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করবে আপনার কি পরিমাণ অর্থ উপার্জন হবে। যদি আপনি মনে করেন অনলাইনে গেম খেলার যেসব অ্যাপ্লিকেশন প্লে- ষ্টোরে আছে সেগুলো ইন্সটল করে আপনি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। তাহলে আমি বলব, আপনি এখনও বোকার স্বর্গে বাস করছেন। কিন্তু এটাও বলছি গেমগুলো থেকে আস্থায়ীভাবে সামান্য কিছু অর্থ উপার্জন করতে পারবেন যেগুলো আপনার কোন কাজে আসবে না। তাই আজকের এই পোস্ট আমি তেমন কোনো অ্যাপ্লিকেশন রিভিউ নিয়ে আলোচনা করবো না। আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব গেম খেলে চিরস্থায়ী উপায়ে কিভাবে আয় করা যায়। 

ফেসবুকের বিভিন্ন গ্রুপ ও পেজে অনেক সস্তায় পেয়ে যাবেন কিছু পোস্ট যেগুলোতে বলা হয় গেম খেলে আয় করুন ১০০ ডলার, গেম খেলে আয় করুন ৫০ ডলার, এই গেমটি ইন্সটল করি পেয়ে যাবেন ১০ ডলার ইত্যাদি। এসব ধান্দাবাজি আর ফাইজলামী ছাড়া আর কিছুই নয়। তবে অনলাইনে কিছু গেম রয়েছে যেগুলো কম্পিউটার বা মোবাইলে ইন্সটল করার পর কিছু পরিমাণ কয়েন পাওয়া যায়। কিন্তু সেগুলো থেকে যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন করতে পারবেন সেখান থেকে ১০০ ডলার ইনকাম করতে আপনার লেগে প্রায় একবছর। তাই এই বিষয় থেকে দূরে থাকাই ভালো।

১. ইউটিউবে গেম খেলে টাকা আয়

অনলাইনে গেম খেলে টাকা আয় করার সবচেয়ে ভালো ও জনপ্রিয় একটি মাধ্যম হচ্ছে ইউটিউবিং করা। ইউটিউবে একজন ভালো গেমার খুব সহজেই অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারে। ইউটিউবে গেমারদের প্রচলন রয়েছে। গেমিং চ্যানেল তৈরি করার মাধ্যমে সেখানে ভিডিও আপলোড করে অন্যান্যদের মত খুব সহজেই ভালো একটি ইনকাম করা যায়। সবচাইতে বড় কথা হচ্ছে অন্যান্য ইউটিউবারদের মতো খুব বেশি পরিশ্রম মেধা খরচ করতে হয় না। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে একজন গেমার তার ভিডিও রেকর্ড করে টেকনিক্যালি ইউটিউবে আপলোড করতে পারে। তাই সর্বপ্রথম গেম খেলে টাকা আয় করতে হলে একটি ইউটিউব চ্যানেল থাকা জরুরী। আপনি কিভাবে ইউটিউব চ্যানেল খুলবেন তার ভিডিও নিচে দেওয়া হলঃ

একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে আপনি সেখানে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করতে পারেন। আপনি যে গেমগুলো খেলতে পছন্দ করেন এবং গেমগুলোতে আপনি বেশি দক্ষ মনে করেন সেই গেমগুলোর স্ক্রিন রেকর্ড করে তার ভিডিও আপনি ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন। বন্ধুরা একজন গেমার ইউটিউবার তিনটি উপায়ে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারে। ভিডিও আপলোড করে ভিডিও মনিটাইজেশনের মাধ্যমে ইনকাম করতে পারেন। ভিডিও মনিটাইজেশন করে আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারেন। এজন্য আপনাকে আলাদা করে কোন স্ক্রিপ্ট , ভিডিও রেকর্ড করার মতো ঝামেলায় পড়তে হয় না।

বর্তমানে বাংলাদেশে অনেক জনপ্রিয় ইউটিউব গেমিং ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে যারা প্রচুর পরিমাণ ইনকাম করতে পারেন। বাংলাদেশে থেকে অনেক গেমার প্রায় ১০০০ থেকে ২০০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারেন। একজন গেমারকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হয় তার ভিডিওগুলোর কোয়ালিটি উপর। তার ভিডিওগুলোর কোয়ালিটি যেন অন্যদের চাইতে ভাল হয়। ভিডিও কোয়ালিটি যদি ভাল হয় তাহলে ইউটিউবে ভিউয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। আর ভিউ বেড়ে গেলে অ্যাডভার্টাইজমেন্ট বেড়ে যায়। আর অ্যাডভার্টাইজমেন্ট বেড়ে গেলে বুঝতেই পারছেন আপনার এডসেন্স ভারী হতে থাকবে । ও আরেকটি কথা বলাই হয়নি ইউটিউবে যে পরিমাণ ইনকাম হবে সেই পরিমাণ ইনকাম আপনার গুগোল অ্যাডসেন্সে জমা হবে সেখান থেকে আপনি ব্যাংক অথবা যে কোন মাধ্যমে টাকা তুলতে পারবেন। 

ইউটিউব একটি ভালো পার্ট টাইম জব এর মত কাজ করে। একজন গেমারের অনলাইনে আয় করার সবচেয়ে সহজ উপায় যদি খুঁজে তাহলে তা হচ্ছে ইউটিউব। একটু খেয়াল করলেই দেখবেন গেমিং চ্যানেল গুলোর ভিডিও প্রতিদিন মিলিয়ন থেকে মিলিয়ন ভিউজ হয়। কিন্তু সেই তুলনায় খুব বেশি পরিশ্রম করতে হয় । অনলাইন গেম খেলে আয় যে পরিমাণ করা যায় তা জানলে হয়তো আপনার চোখ কপালে উঠে যাবে। শুধুমাত্র ভিডিও গেমস এর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে ইনকাম সম্পর্কে ধারণা দেয়ার জন্য বর্তমানে বিশ্বের একটি জনপ্রিয় চ্যানেল উদাহরণ হিসেবে আপনাদের সামনে তুলে ধরা হলো।

T-series ইউটিউবের সবচেয়ে বড় একটি চ্যানেল। এটি ভারতের একটি মিউজিক কোম্পানির পরিচালনায় নিয়ন্ত্রিত। ইউটিউব সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা প্রায় ২০০ মিলিয়ন এর কাছাকাছি। তবে t-series একটি সংগীত মূলক ভারতীয় চ্যানেল। এর পরপরই স্থান দখল করে আছে একটি গেমিং চ্যানেল যার নাম PewDiePie। আর এই চ্যানেলটি একটি জনপ্রিয় গেমিং চ্যানেল। ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইব সংখ্যা হচ্ছে প্রায় ১১৫ মিলিয়ন। এটি একটি গেমিং চ্যানেল যার অবস্থান ইউটিউব থেকে বিশ্বের দ্বিতীয়।

 ইউটিউব চ্যানেলটি শুধুমাত্র গেমিং ভিডিও আপলোড করে। আর এই গেমিং ভিডিও আপলোড করে প্রতিমাসে প্রায় ৫০০,০০০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করে থাকে। এছাড়াও আরও অনেক রকম জনপ্রিয় গেমিং চ্যানেল রয়েছে। তবে আপনি যদি একজন দক্ষতা সম্পন্ন ভালো গেমার হন এবং প্রফেশনাল ভাবে আপনার গেম ইউটিউবে আপলোড করে থাকেন তাহলে কিছুদিন যাওয়ার পর ভিডিও আপলোড করে প্রতিমাসে ৫০০ থেকে ১০০০ ডলার আয় করা এমন কোন কষ্টের ব্যাপার হবে না। এরপর আস্তে আস্তে যখন আপনার জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে আপনার আয়ের পরিমাণ তত বাড়তে থাকবে। তাই আমি আপনাকে ব্যক্তিগতভাবে সাজেস্ট করবো আপনি যদি গেম খেলে টাকা আয় করতে চান তাহলে অবশ্যই ইউটিউব চ্যানেল খোলার চেষ্টা করতে পারেন।

অনলাইনে আয় করতে আরও পড়ুন

·               কিভাবে বিকাশে টাকা আয় করা যায়
·             মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
·             কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায় 
·              গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট 

 

২. ব্লগিং করে টাকা আয় 

গেম খেলে টাকা আয় করার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম ব্লগিং করা। গেমিং ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করে আই আপনার যদি বিভিন্ন ধরনের গেম সম্পর্কে ভাল অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। তাহলে আপনার নিজের নামে একটি অথবা অন্য কোন ভালো নামে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেন। সেখানে গেম এর রিভিউ লিখে ব্লগিংয়ের মাধ্যমে অনলাইনে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করতে পারেন। আপনি চাইলে কোন প্রকার ইনভেস্টমেন্ট ছাড়াই ফ্রিতে ওয়েবসাইট তৈরি করে আয় শুরু করতে পারেন। তবে আপনি চাইলে ডোমেইন- হোস্টিং ক্রয় করে আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন।

লুডু খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার উপায়
লুডু খেলে টাকা আয়

আপনি আপনার ব্লগে যদি ভাল মানের আর্টিকেল লিখতে পারেন তাহলে সেখানে ভালোমানের ট্রাফিক আসবে আশা করা যায়। গেম খেলে টাকা আয় তাই আপনাকে প্রথমে গেমিং বিষয়ে ভালো পরিমাণ ধারণা থাকতে হবে। কারণ আপনি যে বিষয়ে ব্লগিং করবেন সে বিষয়ে যদি ভাল ধারনা না থাকে তাহলে আপনি ভালো লিখতে পারবেন না। আর ভালো আর্টিকেল লিখতে না পারলে সেখানে ভালো পরিমাণ ট্রাফিক আশা করা যায় না । আর ব্লগিং এ ইনকাম আসে আপনার ট্রাফিক পরিমাণের উপর নির্ভর করে । আপনি জানেন এবং অনেক ভাল জানেন সেগুলো নিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করুন এবং সেখানে লেখালেখি করা শুরু করুন। আপনি যদি আপনার জ্ঞানের বিষয় সাজিয়ে গুছিয়ে লিখতে পারেন তাহলে সেখানে আপনি অনেক ট্রাফিক আশা করতে পারেন এবং সেই ট্রাফিক থেকে আপনার ব্লগে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে একটি ভালো পরিমাণ ইনকাম করতে পারবেন। 

গেমিং ওয়েবসাইটগুলোতে অনেক ভালো পরিমাণে ট্রাফিক থাকে। কাজেই আপনি যদি জানেন সম্পর্কে অনেক ভালো জানেন এবং সেগুলো নিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করেন তাহলে আপনি খুব সহজেই লেখালেখি করে আয় করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই কনটেন্ট রাইটিং সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। কারণ আপনি যদি গেমের বিষয়ে সাজিয়ে গুছিয়ে লিখতে না পারেন তাহলে একজন পাঠক আপনার রিভিউটি পড়তে চাইবে না। 

বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আর্টিকেল লিখে আয়

অন্যের ওয়েবসাইটে ঢুকে সেই ওয়েবসাইটের মধ্যে একটি একাউন্ট করে লেখালেখি করাকে গেস্ট পোস্ট বলা হয়। গেস্ট পোস্ট দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। অনেকে রয়েছে যারা নিজেদের সুবিধার্থে অন্যের ওয়েবসাইট এর মধ্যে গেস্ট পোস্ট করে থাকেন। বিনিময় কোন প্রকার টাকা আয় করতে পারেন না। বিশেষত তারা শুধু নিজের প্রয়োজনে সেই সকল ওয়েবসাইট এরমধ্যে গেস্ট হিসেবে আর্টিকেল পোস্ট করে থাকেন।

শুধুমাত্র গেস্ট পোস্টিং করা ছাড়াও এমন কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেই ওয়েবসাইটগুলোতে জয়েন হয়ে ব্লগ পোস্ট পাবলিশ করতে পারবেন, আর আর্টিকেল লিখে পাবলিশ করার পর প্রতিটি পোস্ট থেকে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা তারা আপনার একাউন্টে জমা করে দেবে। এ সকল ক্ষেত্রে একেক ওয়েবসাইট আর্টিকেল এর উপর একেক ধরনের অ্যামাউন্ট পে করে থাকে।

৩. Twitch এ গেমিং ভিডিও আপলোড করে আয়

ইউটিউব এর মত আরেকটি ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে Twitch গেম খেলে টাকা আয় করার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম Twitch. তবে এই প্ল্যাটফর্মটিতে সকল ধরনের ভিডিও আপলোড করা হয় না। Twitch এর মধ্যে শুধুমাত্র ভিডিও গেমের লাইভ স্ট্রিমিং ও রেকর্ডকৃত নানা ধরনের গেমিং ভিডিও এখানে আপলোড করা হয়ে থাকে। আপনি যদি ইউটিউব এর মত এরকম একটি জনপ্রিয় প্লাটফর্মে ভিডিও আপলোড করতে পারেন, ইউটিউব এর পাশাপাশি গেমিং ভিডিও আপলোড করে টাকা ইয় করতে পারেন। তাহলে Twitch প্ল্যাটফর্মটি আপনার জন্য সহজ মনে হবে। 

তাছাড়া এখানে আরেকটি চমৎকার ব্যাপার হচ্ছে, ইউটিউবের মত করে Twitch এরমধ্যে এত কঠিন পলিসি নেই। এখানে আপনি ভিডিও তৈরি করে খুব অল্প সময়ের মধ্যে ভিডিও আপলোড করে আয় করা শুরু করতে পারবেন। Twitch থেকে আয় করার জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে তাদের হালকা কিছু নিয়ম মেনে কাজ করতে হবে। আর এর জন্য নিচের রিকোয়ারমেন্ট গুলো পুরন হলেই ভিডিও মনিটাইজ করে আয় করা সম্ভব হয়।

  • শেষ এক মাসে যদি আপনার মাত্র ৫০০ মিনিট ওয়াচ টাইম থাকে তাহলেই ভিডিও মনিটাইজ  করে আয় করা শুরু করতে পারবেন।
  • শেষ এক মাসে ৭ টি ভিডিও আপলোড করতে হয়।
  • শুধুমাত্র ৫০ জন ফলোয়ার থাকলে ভিডিও মনিটাইজ করা সম্ভব হয়। কিন্তু ইউটিউব এর ক্ষেত্রে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার লাগে।

Twitch প্ল্যাটফর্মটির কথা আপনি হয়তো এবারই প্রথম শুনতে পারেন। কারণ বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ এ সম্পর্কে খুব একটা জানেনা। কিন্তু গেম স্ট্রিমিং এর জন্য Twitch প্ল্যাটফর্মটি অনেক জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট। তাছাড়াও এখানে আরেকটি মজার ব্যাপার হচ্ছে এখানে অনেক ইন্টারন্যাশনাল গেমারদের সন্ধ্যান পাওয়া যায়। যদি আপনি একজন দক্ষ গেমার হয়ে যান, তাহলে গেম খেলে টাকা আয় করার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম Twitch থেকে ইনকাম করতে পারেন। ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে ইনজয় করার পাশাপাশি ভিডিও স্ট্রিমিং করে গেম খেলে টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

৪. ফেসবুক থেকে টাকা আয়

আমাদের মধ্যে অনেকেই ফেসবুক থেকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় এ সম্পর্কেও google সার্চ করে থাকি। আপনি যদি একজন দক্ষ গেমার হতে পারেন তাহলে আপনি ফেসবুক থেকে আয় করতে পারবেন। আর এই কাজটি করার জন্য আপনার অবশ্যই একটি ফেসবুক পেজ থাকতে হবে। আর সেই ফেসবুক পেজটিতে ভিডিও আপলোড করতে হবে।গেম খেলে টাকা আয় করার আরেকটি জনপ্রিয় মাধ্যম ফেসবুক। 

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার উপায়
গেম খেলে টাকা আয়

একটি কথা অবশ্যই মনে রাখবেন, শুধুমাত্র একটি নিজস্ব ফেসবুক একাউন্ট খুলে আয় করা কখনোই সম্ভব নয়। আপনাকে একটি নির্দিষ্ট ফেসবুক পেজ খুলতে হবে এবং সেই ফেসবুক পেজটিতে গেমিং ভিডিও আপলোড করতে থাকুন। আপনি চাইলে গেমগুলো লাইভ স্ট্রিমিং করতে পারেন। এতে করে সহজ অনেক বেশি ভিউজ পাবেন। ফেসবুকের নিয়মাবলী অনেকটা ইউটিউব এর মতই। বর্তমানে অনেক গেমার রয়েছে যারা শুধুমাত্র ফেসবুক থেকেই অনেক ভালো পরিমাণ টাকা আয় করছে।

বর্তমানে ইউটিউব এর থেকেও খুব তাড়াতাড়ি সফলতা পাওয়া সম্ভব হবে। কারণ এখানে প্রচুর পরিমাণে একটিভ ট্রাফিক রয়েছে। যার কারণে ভিডিও ভাইরাল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আপনার যেকোনো একটি ভিডিও যদি ভাইরাল হয়ে যায় তাহলে যে কি পরিমান টাকা ইনকাম হবে। এখানে আরেকটি সুবিধা হচ্ছে আপনি আপনার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও ফেসবুকে আপলোড করতে পারবেন। এতে করে আপনার ইউটিউব চ্যানেলের পাশাপাশি ফেসবুক থেকেও আয় করার মাধ্যমে স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারেন। 

অনলাইনে আয় করতে আরও পড়ুন

·               কিভাবে বিকাশে টাকা আয় করা যায়
·             মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
·             কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায় 
·              গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট 

৫. টুর্নামেন্ট গেম খেলে টাকা আয়

আমাদের মাঝে অনেক মানুষ রয়েছেন যাদের গেমিং টুর্নামেন্ট খেলার প্রতি অনেক আগ্রহ রয়েছে। আর এই গেমিং টুর্নামেন্ট বর্তমানে অনলাইনের পাশাপাশি অফলাইনেও খেলা হয় থাকে। বিশেষত বর্তমান সময়ের সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় গেম PUBG, Free Fire এবং Call of Duty এর টুর্ণামেন্ট নানা রকমের সাইবার ক্যাফেতে আয়োজন করা যায়। এছাড়াও এসকল  গেম গুলোর মধ্যে রেজিস্ট্রেশন করে অনলাইনে এন্ট্রি ফি দাখিল করে টিমওয়ারি গেম খেলে টাকা আয় করা যায়।

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট পাওয়ার উপায়
গেম খেলে টাকা আয়

যদি আপনি অনেক দক্ষতা সহকারে PUBG খেলতে পারেন  অথবা যদি আপনি নিজেকে একজন PUBG এক্সপার্ট মনে করেন, তাহলে  অনলাইনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে বিভিন্ন দলের সাথে পাবজি খেলে ঘরে বসে টাকা আয় করে নিতে পারবেন। তবে একটি কথা মনে রাখবেন এন্ট্রি ফ্রি দেওয়ার পর খেলায় যদি আপনি হারেন, তাহলে আপনি আপনার  সেই এন্ট্রি ফি ফিরে পাবেন না।

এরকম ধরনের গেমের ক্ষেত্রে আপনি এক্সপার্ট না হলে অংশগ্রন করবেন না। কারণ বর্তমানের এই কম্পিটিশনের যুগে অনেক দক্ষতা সম্পন্ন গেমার  অনলাইনে রয়েছেন যারা আপনার থেকেও অনেক বেশি দক্ষতা সম্পন্ন হয়। কিন্তু আপনি একজন দক্ষতা সম্পন্ন গেমার হয়ে উঠতে পারেন  এবং সবসময় টুর্ণামেন্ট জিতে পারেন তাহলে গেমিং এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

শেষ কথা

আসলে আপনার যদি গেমের প্রতি প্রচুর আগ্রহ এবং দক্ষতা থাকে তাহলে আপনি উপরের মাধ্যমগুলো ছাড়াও আরো বিভিন্ন উপায় বা মাধ্যম ব্যবহার করে গেম খেলে টাকা আয় করতে পারবেন। যেহেতু বর্তমান সময়ে গেমিং এর ক্ষেত্রে ইউটিউব এবং ফেসবুকে এগিয়ে। তাই আপনি ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করার পাশাপাশি সেইটা আবার ফেসবুকে আপলোড করা শুরু করে দিন। তারপর আস্তে আস্তে আপনার জনপ্রিয়তা বৃদ্ধির পাশাপাশি আপনি নিজেই গেমিং এর মাধ্যমে ভালো পরিমাণে টাকা আয় করতে সক্ষম হবেন।

গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট নিতে আপনার তেমন কোন কষ্ট হবে না । আপনি চাইলে গেম খেলে টাকা আয় করে সেই টাকা ব্যাংক এ জমা করে যখন- তখন বিকাশে পেমেন্ট নিতে পারেন।

মনে রাখবেন গেম খেলে টাকা আয় করার জন্য আপনি আপনার জীবনের মূল্যবান সময় নষ্ট করবেন না । এতে আপনার পরবর্তী জীবনের জন্য অভিশাপ হয়ে দাঁড়াবে ।

অনলাইনে আয় করতে আরও পড়ুন

·               কিভাবে বিকাশে টাকা আয় করা যায়
·             মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট
·             কোন গেম খেলে টাকা আয় করা যায় 
·              গেম খেলে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট 

আমি কোন ইসলামিক চিন্তাবিদ নই তাও বলতে পারি, কম্পিউটার বা মোবাইল এর মাধ্যমে গেম খেলে টাকা আয় করা অবশ্যই ঠিক নয়। কারণ যেসব খেলায় শারীরিক বা মাংসিক কোন পরিশ্রম নাই, সেইসব খেলা করে টাকা উপার্জন করা উচিত না। অর্থাৎ আমাদের উচিত গেম খেলে টাকা উপার্জন না করে কাজ শিখে চিরস্থায়ী টাকা আয়ের হোক অনলাইন অথবা অফলাইন উপায় অবলম্বন করা। এক্ষেত্রে আপনি আমার দেখানো দুইটি উপায় অবলম্বন করতে পারেন। আমাদের লিখাটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ ।

%d bloggers like this: