পাদ কি? পাদ নিয়ে কিছু মজার কথা

পাদে পাদন্তি, পাদে কি শান্তি, পাদ নাই যার, পোড়া কপাল তার। পাদ নিয়ে কিছু মজার কথা থাকছে আজকের এই বিনোদনমূলক পোস্টে। পাদের ইংরেজি শব্দ হল Fart. Fart মানে পাদ মারা ৷ 

পাদ কাকে বলে? পাকস্থলীতে লুকিয়ে থাকা বায়ু যে বিশেষ প্রক্রিয়ায় পায়ুপথ হতে নির্গত হয় তাকেই পাদ বলে। পাদ হচ্ছে মানবজাতির জন্য অতিব জরুরী একটি পন্থা। মানবশরীরের পাকক্রিয়ার ফলে এই বায়ু সৃষ্টি হয়ে থাকে। এই বায়ু মলনালীতে সঞ্চিত থাকে এবং পরিমাণে বৃদ্ধি পেলে তা নিঃসৃত হয়।

পাদ কি

পৃথিবীতে সভ্যতার ইতিহাসে এমন কোনো বাপের ব্যাটা কিংবা বেটি এখন পর্যন্ত খুঁজে পাওয়া যায় নি যে পাদ দেয় না। পাদ সবাই-ই দেয়। আমরা পাদ চক্ষুলজ্জার ভয়ে চেপে রাখি। এই চেপে রাখার ক্ষমতা পুরুষদের তুলনায় মহিলাদের অনেক বেশি। কিন্তু পাদ কখনো চেপে রাখা উচিত নয়। কারন পাদ চেপে রাখলে বায়ু উর্ধমুখী চাপ দেয়, ফলে মাথা যন্ত্রণা ও নানান শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়।

আরও পড়ুন: রিং আইডি কি তাহলে ডেস্টিনির পথে হাঁটছে

একজন মানুষ যদি টানা ৬ বছর ২ মাস পাদ দেয়, তবে সেটা একটা পারমাণবিক বোমার মতো শক্তি অর্জন করে। তবে একটি পাদ যখন নির্গত হয়, তার শক্তি থাকে একটি মোমবাতিকে নিভিয়ে দেওয়ার মতো। প্রাচীনকালে মানুষ পাদের গন্ধ বোতলে জমিয়ে রেখে শুঁকত। কারণ তারা মনে করত যে তাতে নাকি আয়ু বৃদ্ধি হয়। কিন্তু এই সম্পর্কে কোনো বৈজ্ঞানিক ব্যখ্যা পাওয়া যায়নি।

পাদে কেন দুর্গন্ধ হয়

একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে যে, পাদের নাইট্রোজেন ও কার্বন ডাই অক্সাইড বেশি থাকে সেই পাদে কোনো গন্ধ হয় না। কিন্তু আওয়াজ বেশি হয়। যা নিজের কাছে তো বটেই, অন্যের কাছেও বেশ অস্বস্তির হয়ে দাঁড়ায়।

আরও পড়ুন: ১৩ টি ভূতের ছবি দেখলে পেতে পারেন এক লক্ষ টাকা

  • গড়ে একজন মানুষ প্রতিদিন ১৪ বার বায়ু ত্যাগ করে
  • অর্থাৎ প্রতিদিন আধা লিটার পরিমাণ
  • বায়ুর গতিবেগ হতে পারে ঘণ্টায় ৭ মাইল (১১ কিলোমিটার)
  • বায়ু যখন তৈরি হয় তখন সেটার তাপমাত্রা থাকে ৯৮.৬ ডিগ্রী ফারেনহাইট
  • বায়ুতে সাধারণত গন্ধ থাকেনা, কিন্তু যখন ব্যাকটেরিয়া যোগ হয় তখন যে গ্যাস তৈরি হয় তাতেই মূলত গন্ধ হয়।
  • নীরব পাদ ঘাতক বেশি
  • শিমের বীজ খেলে বায়ু বেশি হয়
  • মৃতদেহ থেকেও বায়ু আসতে পারে
  • নিরামিষাশীরা মাংসাশীদের থেকে বেশি বায়ু ছাড়েন
  • বায়ুতে ৫৯% ই থাকে নাইট্রোজেন

সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় এই যে মানুষ মরে গেলেও যদি পাদ দেয় তবে ঘাবড়ে যাবেন না। কারণ মানুষের মৃত্যুর পরেও ৩ ঘন্টা পাদ দিতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

fourteen + three =

Back to top button