বাংলা প্রেমের কবিতাঃ ১০০+ ভালোবাসার কবিতা

63
প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা
প্রেমের কবিতা

প্রেমের কবিতা বলতে মনে প্রেম ও ভালোবাসা নিয়ে গভীরভাবে মনের সংলাপগুলোকে সাজানো। প্রেম ভালোবাসা মানুষের জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রেম আছে বলেই মানুষ বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখে। যেখানে প্রেম নেই সেখানে বেঁচে থাকার আশায় ক্ষীণ। প্রেম পুরোপুরি মানসিক বিষয়। এটি মানুষের মনে তৈরি হয়। যখন কোন মানুষের মনে প্রেম ভালোবাসার আবেগের উপস্থিতিতে ঘটে তখন সেই ব্যক্তি সহজে প্রেমের কবিতা লিখতে পারে। যে ব্যক্তি কখনো প্রেমে পড়েনি সে কখনো ভালোবাসার কবিতা লিখতে পারবে না। কথায় আছে মানুষ যখন প্রেমে পড়ে তখন সে কবি হয়ে উঠে। আর সেই ক্ষণে একজন ব্যক্তি খুব সহজে ভালবাসার কবিতা এবং রোমান্টিক প্রেমের কবিতা লিখতে পারে।

বাংলা প্রেমের কবিতা ২০২১

প্রেমের কবিতাঃ প্রেমের কবিতাকে অনেকে আবার ভালোবাসার কবিতাও বলে। এই বর্তমান যুগ ইন্টারনেট ও টেকনোলজির যুগ হওয়ার কারনে আমরা রোমান্টিক প্রেমের কবিতা এবং ভালোবাসার কবিতা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে নিজের প্রিয়জনকে ভালোবাসার কথা প্রকাশ করি। প্রেমের কবিতায় অতিরিক্ত রোমান্স থাকলে তাকে রোমান্টিক প্রেমের কবিতা বলা হয়।

প্রেম হলো এমন একটি সুন্দর অনুভূতি যা সহজে কথায় প্রকাশ করা যায় না। তাই প্রেমের অনুভূতিকে প্রকাশ করার জন্য অনেকেই ভালোবাসার কবিতা ও রোমান্টিক কবিতার সন্ধান করে থাকে। এবং আপনিও যদি তাদের মধ্যে একজন হন তাহলে আপনি একদম সঠিক ওয়েবসাইটে এসেছেন। কারণ এই পোস্টে আপনি রোমান্টিক প্রেমের কবিতা থেকে শুরু করে মিষ্টি প্রেমের ছন্দ, সকল ধরনের সুন্দর প্রেমের কবিতা পেয়ে যাবেন।

অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা

এই পোস্টে যা যা থাকছে

প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা পড়তে ও শুনতে আমরা সবাই পছন্দ করি। বিশেষকরে প্রেমের কবিতা (Premer Kobita) এর প্রতি আমাদের সবার আগ্রহ একটু বেশি থাকে। আজ আমরা ১০০টি অসম্ভব সুন্দর প্রেমের কবিতা আপনাদের সাথে শেয়ার করব। প্রেম ভালোবাসার প্রতি যাদের দূর্বলতা আছে, তাদের অবশ্যই এই রোমান্টিক প্রেমের কবিতা পছন্দ হবে। For Scholarship: Online University School

দূরে গেলে তুমি,
হারিয়ে যাবাে আমি।
ভালােবাসি তােমায়,
বােঝনা কেন তুমি।
ছােট্ট এই জীবনে,
একটাই শুধু চাওয়া।
তােমাকে আপন করে,
আমার শুধু পাওয়া।
ডালটি হলো সবুজ,
ফুলটি হলো লাল,
তোমার আমার ভালোবাসা
থাকবে চিরকাল।
ফুলে ফুলে সাজিয়ে রেখেছি এই মন,
তুমি আসলে দুজন মিলে
সাজাবো জীবন।
চোখ ভরা স্বপ্ন বুক ভরা আশা
তুমি আসলেই ডাউনলোডে দিবো
আনলিমিটেড ভালোবাসা।
আজ ছন্দ মহলে
মিলছে দুটি মন,
মনে মনে বলবে ওরা
কথা যে সারাক্ষন,
কথার মাঝে থাকবে
গভীর ভালোবাসা,
ভালোবাসার মাঝে থাকবে
দুটি মনের বেকুলতা
স্কুল লাইফে তোমায় দেখি
কলেজ লাইফে প্রেম,
হাতের মাঝে উল্কি এঁকে
লিখেছি তোমার Name..
জল জমে থাকা কাচে
জ্বর হয়ে থাকা আঁচে
তুমিও থাকো অসুখের মতো
কী ভীষণ ছোঁয়াচে!
আমিও চলে যেতেই পারতাম, তোমার মতো
আমার বুকেও জমছে অথৈ কান্না, ক্ষত
তবুও আমি থেকেই গেছি, কোথাও যাইনি
তোমায় ভুলে, অন্য মানুষ খুঁজতে চাইনি!
সেখানে তোমর চিহ্ন, যেখানে পেতেছি বুক
ছিন্ন পালের নৌকা জেনেছে, ভেসে যাওয়া যতটুক।
সেখানে তোমার সীমানা, যেখানে থেমেছি আমি
তুমি ছাড়া আর সকলে জেনেছে, তুমি অন্তর্যামী।
পথের ধুলোয় পায়ের ছাপটি আঁকা
ছাপের ভেতর মন কেমনের সুর।
চলে গিয়ে চোখের আড়াল হলেও
মনের আড়াল কোথায়, কত দূর?
তোমার একটা নাম থাকুক আমার দেয়া
মেঘের মেয়ে, নদী কিংবা জলজ খেয়া
আমার দেয়া একখানা নাম তোমার থাকুক
না হয় আমি হারিয়ে গেলেও
একলা একা সন্ধা তারা
সেই নামেই তোমায় ডাকুক।
আমার তকেই ভাবা ভোর
চোখে শাপলা-শালুক ঘোর।
থাকুক শাপলা-শালুক ঘোর
থাকুক টুপ জেলেদের ভোর
থাকুক ছন্নছাড়া রাত
তর হাতের ভীতর হাত।
থাকুক তর পায়েতে পা
তুই অন্যতো কেউ না।
আমি হলাম সাগর
তুমি হলে ঢেউ,
চুপি চুপি প্রেম করবো
জানবে নাতো কেউ।
তোমার একটা নাম থাকুক আমার দেয়া
মেঘের মেয়ে, নদী কিংবা জলজ খেয়া
আমার দেয়া একখানা নাম তোমার থাকুক
না হয় আমি হারিয়ে গেলেও
একলা একা সন্ধা তারা
সেই নামেই তোমায় ডাকুক।
পাখির ঠোঁটে চিঠি দিলাম,
তুমি খুলে পড়ো।
স্বপ্ন দেখে ভয় পেলে
হাতটা চেপে ধরো।
রাত জাগা পাখির মত
জেগে আছি আমি,
মনটা আমার জানতে চায়
কেমন আছো তুমি ?
রাতের আকাশে অনেক তারা।
একলা লাগে তােমাকে ছাড়া।
শুধু ভাবি তােমার কথা।
কেমন আছাে আমাকে ছাড়া ?
এমন জলের রাতে নদী হই যদি
যদি—তোমাকে জমা রাখি বুক অবধি।
আধারের রং ছুঁয়ে তুমিও খানিক
আমায় জমিয়ে রেখো বুকের বাঁ দিক।
কিছুটা মেঘের মতো ছাড়া যদি নামে
কিছুটা বিষাদ আসে বিকেলের খামে
সকালের মিহি রোদে, রাত হয়ে যায়
জেনে নিও, খুঁজে আর পাবে না আমায়।
একটা তোমার মতো চাঁদের জন্য মেয়ে
আমি জোছনা সকল হেলায় ভুলে থাকি।
একটা তোমার মতো মনের জন্য মেয়ে
আমি হৃদয়টাকে যত্নে তুলে রাখি।
চেনা রাস্তায়, দেখা হয়ে গেলে
হয়ে যাবে কী, খুব অচেনা?
কেনা সস্তায়, ঢাকা সানগ্লাস
চোখে রয়ে যাবে কী, জল অজানা!
এলোকেশী মেয়ে কার পথ চেয়ে, মেলেছিলে ঐ কেশ?
পথ চাওয়া শেষে, এসেছিল কী সে? ছুয়ে মেঘ অনিমেষ।
এলোকেশী মেয়ে, মেঘবেলা ধেয়ে, এসেছে কী তার ঢল?
তুমি কার জলে, তোমার ভেজালে? ভাসালেই প্রেমাচল!
দেখেনিতো চেয়ে, এলোকেশী মেয়ে, আর কেউ ছিল তার
কী বিষাদে পুড়ে, তার বুক জুড়ে, কেঁদেছে বিরহী সেতার।

ভালোবাসার কবিতা ও ভালোবাসার ছন্দ

ভালোবাসা হলো আবেগ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হৃদয়ের অভ্যন্তরীণ এমন একটা অনুভুতি, যা ভালোবাসার মানুষটির কাছে সহজে প্রকাশ করা যায় না। ঠিক সেই জন্যেই ভালোবাসায় পাগল প্রেমীরা ইন্টারনেটে ভালোবাসার কবিতা ও ভালোবাসার ছন্দ খুঁজে বেড়াই। এবং আপনিও যদি তাদের মধ্যে একজন হন তাহলে আপনি একদম সঠিক ওয়েব পেজটি খুলেছেন। কারণ এই পোস্টে আমরা আপনাদের জন্য ভালোবাসার রোমান্টিক কবিতা থেকে শুরু করে ছোট ছোট ভালোবাসার ছন্দ নিয়ে এসেছি।

ভালোবাসার ফেসবুক স্ট্যাটাস, আবেগি ফেসবুক স্ট্যাটাস, হাসির স্ট্যাটাস, কষ্টের স্ট্যাটাস, ইমোশনাল ফেসবুক স্ট্যাটাস, উপদেশ ফেসবুক স্ট্যাটাস এবং কষ্টের ফেসবুক স্ট্যাটাস
প্রেমের কবিতা

বাংলা প্রেমের কবিতা কি? বাংলা প্রেমের কবিতা সম্পর্কে জানার আগে জানতে হবে, প্রেম কি? প্রেম কে অভিধানে খুঁজতে গেলে পাওয়া যায়: প্রীতি স্নেহ অনুরাগ ভালবাসা ও ভক্তি মিশ্রিত ভাববিশেষ। কিন্তু ‘প্রেম’ অর্থ কি এর মধ্যে সীমাবদ্ধ? চল্লিশ শতাব্দী ধরে অবক্ষয়ী কবি-দল খুঁজে যাচ্ছেন প্রেম কি? অনুভূতি, আকর্ষণ, হৃদয়ের টান? প্রেম কে সংজ্ঞায়িত করা হয় – ভালোবাসার সাথে সম্পর্কিত একটি উত্তেজনাপূর্ণ ও রহস্যময় অনুভূতি। প্রেম নিয়ে কয়েক শতাব্দী থেকে রচনা হচ্ছে প্রেমের কবিতা। প্রেম নিয়ে তৈরি হয়েছে সাহিত্যের এক বিশেষ ধারা।

তুমি আমার রঙিন স্বপ্ন, শিল্পীর রঙে ছবি,
তুমি আমার চাঁদের আলো, সকাল বেলার রবি,
তুমি আমার নদীর মাঝে একটি মাত্র কুল,
তুমি আমার ভালোবাসার শিউলি বকুল ফুল !
আমি হলাম আকাশ, কষ্ট আমার মেঘ,
জোস্না আমার আবেগ, বৃষ্টি আমার কান্না,
রোদ আমার হাসি, কি করলে বুঝবে-
বন্ধু তোমায় আমি কত ভালোবাসি !
তোমার জন্য মেঘ গুলো ভেসে যাচ্ছে আকাশে,
তোমার জন্য স্বপ্নঘুড়ি উড়ছে ভেসে বাতাসে,
তোমার জন্য আছে আমার বুক ভরা ভালোবাসা,
এই কথা জানে শুধু আমার বিধাতা !
অপেক্ষায় আছি অপেক্ষায় থাকবো,
যতদিন বেঁছে থাকি তোমায় মনে রাখবো,
যত কষ্ট হোক সব মেনে নেবো,
তবুও চিরদিন তোমাকেই ভালোবাসবো ।
মেঘের হাতে একটি চিঠি পাঠিয়ে দিলাম আজ
বন্ধু আছি অনেক দূরে হাতে অনেক কাজ
বৃষ্টি তুমি একটি বার জানিয়ে দিও তাকে-
বন্ধু তোমার পাসেই আছি, হাজার কাজের ফাকে ।
চাঁদকে বলে একটু আলো দিতে পারি তোমায়
সেই আলোতে দেখে নিও পরান ভরে আমায়
বাতাস হয়ে উড়িয়ে নেবো মেঘেরই উপরে
সন্ধ্যা হলে পৌঁছে দেবো তোমার আপন ঘরে ।
সকাল বিকেল বৃষ্টি পড়ে
        রাত দুপুরে মন পুকুরে
        নুপুর পরে শব্দ করে
         অচিন পুরে হৃদয় জুড়ে
স্বপ্ন আমার নীল আকাশে উড়ে,
আজ গান বেধেছি তোমার দেয়া সূরে।
জানি আমি তুমি এখন অনেক খানি দূরে,
তবুও তুমি আছো আমার অন্তর জুড়ে।
আমি হলাম সাগর
তুমি হলে ঢেউ,
চুপি চুপি প্রেম করবো
জানবে নাতো কেউ।
দূরে গেলে তুমি,
হারিয়ে যাবাে আমি।
ভালােবাসি তােমায়,
বােঝনা কেন তুমি।
ছােট্ট এই জীবনে,
একটাই শুধু চাওয়া।
তােমাকে আপন করে,
আমার শুধু পাওয়া।
দিন যায় দিন আসে, সময়ের স্রোতে ভেসে,
কেউ কাঁদে কেউ হাসে, তাতে কি যায় আসে,
খুঁজে দেখো আসে পাশে,
কেউ তোমায় তার জীবনের চেয়ে বেশি ভালোবাসে !
তুমি বৃস্টি ভেজা পায়ে সামনে এলে মনে হয়-
আকাশের বুকে যেন জল ছবি এঁকে যায় .
তুমি হাসলে বুঝি মনে হয়,
স্বপ্ন আকাশে পাখি ডানা মেলে দেয় !
আজ ছন্দ মহলে মিলছে দুটি মন,
মনে মনে বলবে ওরা কথা যে সারাক্ষন,
কথার মাঝে থাকবে গভীর ভালোবাসা,
ভালোবাসার মাঝে থাকবে দুটি মনের বেকুলতা !
আজ হটাত বৃষ্টি এলো ভিজে গেলো মন,
ভিজে গেলো সপ্নগুলো, ভিজলো চোখের কোন ।
বৃষ্টি ভেজা স্নিগ্ধ আকাশ, সৃতি কাড়ে মন,
হোক না বৃষ্টি অন্তরেতে হোক না সারাক্ষন ।
কিছু সময় আসে হারিয়ে যাবার
আবার কিছু সময় আসে খুঁজে নিয়ে ধরে রাখবার
কখনো সময় আসে বুঝে নেবার, বুঝিয়ে দেবার,
কিছু সময় আসে সময়কে কাজে লাগাবার ।
ফুলের প্রয়োজন সূর্যের আলো
ভোরের প্রয়োজন শিশির
আর আমার প্রয়োজন তুমি
আমি তোমাকে ভালোবাসি ।
ও পাখি তুই বাজিয়ে তোর শিষ
        ও’ পাড়ায় গেলে তাহাকে বলে দিস
        ব্যালকনিতে যাহার শাড়ি ওড়ে
         তাহার জন্য এখনো মন পোড়ে।
ভালোাবাসা বাগানের ঝরে যাওয়া ফুল,
আর, ভালোবাসি মেঘলা নদীর কুল।
ভালোবাসি উড়ন্ত এক ঝাঁক পাখি,
আর, ভালোবাসি তোমার ওই দুই নয়নের আঁখি ।
ডালটি হলো সবুজ,
ফুলটি হলো লাল,
তোমার আমার ভালোবাসা
থাকবে চিরকাল।
পাখির ঠোঁটে চিঠি দিলাম,
তুমি খুলে পড়ো।
স্বপ্ন দেখে ভয় পেলে
হাতটা চেপে ধরো।
রাত জাগা পাখির মত
জেগে আছি আমি,
মনটা আমার জানতে চায়
কেমন আছো তুমি ?

ছোট প্রেমের কবিতা

প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা পড়তে কার না ভালো লাগে বলুন ? আমার আপনার সবার জীবনেই তো কখনো না কখনো ভালোবাসা এসেছে, তাই না ? আর সেই ভালোবাসার জন্য মনে একটা আলাদাই অনুভূতি করে । তাই আপনার জন্য টিম বং কানেকশনের পক্ষ থেকে আপনার জন্য শিরোনাম টিভির সুন্দর প্রেমের কবিতা কালেকশন । আশা করছি আপনাদের প্রত্যেকের ভালো লাগবে ।

প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা
প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা

যাবে কি পুকুর পাড়ে রাতের বেলায়,
দুজন মিলে জোস্না ছুঁবো তারার মেলায়,
তোমার কোলে মাথা রেখে দেখবো ওই চাঁদ,
ভালোবেসে কাটিয়ে দেব সারা নিশি রাত !!!!


ওই দেখা যায় প্রেম গাছ, ওই আমাদের আশা,
ওই খানেতে বাস করে ভালোবাসা.
ভালোবাসা তুই চাস কি ?
মনের মতো মন পাস্ কি ?
একটা যদি পাস্, আমায় খবর দিয়ে যাস !


তুমি আমার প্রথম সকাল,
একাকী বিকেল, শান্ত দুপুর বেলা,
তুমি আমার সারা দিন, তুমি সারা বেলা,
তুমি আমার একটু খানি ছোয়ায় অনেক খানি পাওয়া.
তুমি আমার কড়া রোধের মিষ্টি শীতল হাওয়া !


জানিনা কি ভাবে তোমার দেখা পাবো,
জানিনা তোমাকে কি ভাবে কাছে পাবো,
জানিনা কতটা আপন ভাব তুমি আমায়,
শুধু জানি আমার এই অবুজ মনটা ভীষণ ভালোবাসে তোমায় !!!


যেতে যেতে পথে হবে প্রেম, শুধু দুটি মনে,
অনুভবে কথা হবে ভালোবাসারই এই মিলনে.
মেঘেরই পালকিতে উড়ে উড়ে , পাখিরা যায় বহু দূরে.
আকাশটা থাকে পিছনে, স্বপ্নের নীল ভুবনে !
হারাবো আজ শুধু ভালোবেসে দুজনে !


মন নেই ভালো, জানিনা কি হলো.
পাশে নেই তুমি, কি করি আমি !
পাখি যদি হতাম আমি এই জীবনে,
তোমায় নিয়ে উড়ে যেতাম অচিন ভুবনে ……


কতটা হাত বাড়িয়ে দিলে তোমার মন ধরা যায়,
কতটা পথ পাড়ি দিলে তোমার মন পাওয়া যায় .
পাবো কি পাবোনা জানিনা , তোমাকেতো বুঝিনা.
তবু তোমার প্রেমে আমি পড়েছি,
বেঁচে থেকেও যেন আমি মরেছি.


তোমার সুভাষে পাগল আমার এই মন,
তাইতো বন্ধু তোমার পাশে থাকতে চাই সারাক্ষন.
নিবেকি বন্ধু কাছে টেনে আমায় ?
আমি অনন্তকাল ভালোবেসে যাবো তোমায় !


ফুলের মতো ফুটে আছে আকাশের ওই তারা,
একা আমি ভালো লাগে না বন্ধু তোমায় ছাড়া,
তুমি ছাড়া এই মনটা কিছু বুঝে না,
পাখি হয়ে আমার কাছে উড়ে এসোনা !


ভালোবাসা মানুষের জীবনকে পাল্টে দেয়,
ভালোবাসা মানুষের জীবনকে রোমান্টিক জীবনে ফিরিয়ে আনে,
ভালোবাসা অতীতকে ভুলে বর্তমানকে নিয়ে ভাবায়,
ভালোবাসা মানুষকে হাসায়/ কাদায় !!!


জীবন তরীর মাঝ সমুদ্রে,
ঢেউ যদি কভু আসে,
দুজন মিলে পাড়ি দেবো,
আমরা মিলে মিশে।


তোমার মুখের হাসি দেখে,
কাটাবো সারা জীবন।
নিজের হাতে, তোমার নামে
সঁপে দিলাম এ মন।


হাসবে তুমি, দেখবো আমি
মুচকি মুচকি হেসে,
সুখের পথের পথিক হয়ে,
যাবো ভালোবেসে।


কষ্ট যদি পাও গো তুমি,
খাতায় লিখে রেখো,
সুযোগ বুঝে আমায় তুমি,
ইচ্ছে মতন বোকো।
দুষ্ট মিষ্টি স্মৃতি নিয়ে
কাটাবো আমরণ,
তোমার মাঝেই হারাতে রাজি
ভেবে দেখো বিচক্ষণ।


তুমি আমার রাতের আকাশের
উজ্জ্বল সুখতারা,
থাকবো দুজন খুশিতে এমন
হয়ে পাগলপাড়া।


ভালোবাসার অপর নাম,
তোমার নামেই লিখে নিলাম,
মুক্ত আকাশের চিলেকোঠায়
স্বর্ণাক্ষরে গেঁথে দিলাম।

কবিদের প্রেমের কবিতা

আপনি যেহেতু প্রেম করেন সেহেতু আপনার প্রেমের মানুষটাকে খুশি করার জন্য প্রেমের সুন্দর সুন্দর কবিতা বিভিন্ন জায়গায় খোজাখুজি করেন। কারন, প্রেমে পড়লে অনেকের ভিতরে কবি হওয়া স্বাদ জাগে। আজ কিছু সেরা প্রেমের কবিতা শেয়ার করব। যেগেুলো পড়ার পর আপনার প্রেমিক বা প্রেমিকার মনে আপনার প্রতি ভালোবাসা বেড়ে যাবে। যে ব্যক্তি কখনো প্রেমে পড়েনি সে কখনো ভালোবাসার কবিতা লিখতে পারবে না। কথায় আছে মানুষ যখন প্রেমে পড়ে তখন সে কবি হয়ে উঠে। আর সেই ক্ষণে একজন ব্যক্তি খুব সহজে ভালবাসার কবিতা এবং রোমান্টিক প্রেমের কবিতা লিখতে পারে। ভালোবাসা নিয়ে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর লিখেছিলেন “ভালোবেসে সখি নিভৃত যতনে আমার নামটি লিখ তোমার মনেরও মন্দিরে”। শুধু রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর নয়, যুগে যুগে যত জ্ঞানি গুনি কবি এর আবির্ভাব হয়েছে, তারা সকলেই কবিতার মাধ্যমে প্রেম ভালোবাসার স্লো গান গেয়েছেন।

প্রেমের কবিতা বা ভালবাসার কবিতা

ভালোবাসি – রেদোয়ান মাসুদ
শুধু একটি বার বলো ভালোবাসি
তোমাকে আর কোনদিন ভালোবাসতে হবে না।
মরুভূমির তপ্ত বালিতেও পা দিতে হবে না।
আমার জন্য তোমকে নিশি রাতে পা ভিজাতে হবে না।
আকাশ বাতাস শুনুক তোমার প্রতিধ্বনি।
সবাই জানুক কেউ আমাকে ভালোবেসেছিল।
আমার হৃদয়ের ডাকে কেউ সাড়া দিয়েছিলো।
শুধু এতটুকুই আমি চাই, এর চেয়ে বেশি চাই না।
কাছে আসো বা না আসো, তাতে আমার কোনো আপত্তি নেই।
হৃদয়কে না হয় একটি বার হলেও সান্তনা দিতে পারব
কেউতো অন্তত একটি বার হলেও প্রাণের ছোয়া দিয়েছিল।
কয়েক সেকেন্ডের জন্য হলেও শুকিয়ে যাওয়া নদীতে
আবার ঝড়ের বেগে অশ্রুর বন্যা বয়েছিল।
শুধু এতটুকুই আমি চাই, এর চেয়ে বেশি চাই না।
এর জন্য তুমি কি চাও?
হয়তোবা আমি তোমাকে আকাশের চাঁদটি এনে দিতে পারবোনা
পূর্ব দিকে উঠা সূর্যটিকেও হাতে তুলে দিতে পারবোনা।
কিন্তু পারবো তোমার জন্য আমি রজনীর পর রজনী জেগে থাকতে
পারবো আজীবন তোমার জন্য অপেক্ষা করতে।
হয়তো আমার এই শুন্য হৃদয়ে এক সময় কেউ স্থান করে নিবে
কিন্তু তুমিতো আর আমার হলে না।
কি হবে ভরে এই শুন্য হৃদয় ?
দু টাকার গোলাপ
প্রতি নিয়ত শিখছি..
 বেঁচে থাকার কায়দা..
 কখনো জানলাতে চোখ রেখে..
 কখনো বা মেঘটা কে দেখে..
 তোমার রূপকে আড়াল করার ক্ষমতা আমার নেই…
 কিছুক্ষণের জন্যও তুমি শুধু আমার…


 তোমার কথার চার দেওয়ালে বন্দী..
 ফোনের প্রেমালাপ চলত..
 মাঝরাতে তোমার টানে আমি মিথ্যুক সেজেছি…
 সব কথা বলা হয়নি…
 ওগুলো না বলাই থাক…
 পাপড়ি গুলো শুকিয়ে গেছে..
 মূল্য হারিয়েছে দু টাকার গোলাপ ।
তুই কি আমার দুঃখ হবি?
তুই কি আমার দুঃখ হবি?
এই আমি এক উড়নচণ্ডী আউলা বাউল
রুখো চুলে পথের ধুলো
চোখের নীচে কালো ছায়া।
সেইখানে তুই রাত বিরেতে স্পর্শ দিবি।
তুই কি আমার দুঃখ হবি?
তুই কি আমার শুষ্ক চোখে অশ্রু হবি?
মধ্যরাতে বেজে ওঠা টেলিফোনের ধ্বনি হবি?
তুই কি আমার খাঁ খাঁ দুপুর
নির্জনতা ভেঙে দিয়ে
ডাকপিয়নের নিষ্ঠ হাতে
ক্রমাগত নড়তে থাকা দরজাময় কড়া হবি?
একটি নীলাভ এনভেলাপে পুড়ে রাখা
কেমন যেন বিষাদ হবি?


তুই কি আমার শুন্য বুকে
দীর্ঘশ্বাসের বকুল হবি?
নরম হাতের ছোঁয়া হবি?
একটুখানি কষ্ট দিবি?
প্রতীক্ষার এই দীর্ঘ হলুদ বিকেল বেলায়
কথা দিয়েও না রাখা এক কথা হবি?
একটুখানি কষ্ট দিবি?
তুই কি একা আমার হবি?
তুই কি আমার একান্ত এক দুঃখ হবি?
পাগলী, তোমার সঙ্গে – জয় গোস্বামী
পাগলী, তোমার সঙ্গে ভয়াবহ জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে ধুলোবালি কাটাব জীবন
এর চোখে ধাঁধা করব, ওর জল করে দেব কাদা
পাগলী, তোমার সঙ্গে ঢেউ খেলতে যাব দু’কদম।
অশান্তি চরমে তুলব, কাকচিল বসবে না বাড়িতে
তুমি ছুঁড়বে থালা বাটি, আমি ভাঙব কাঁচের বাসন
পাগলী, তোমার সঙ্গে বঙ্গভঙ্গ জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে ৪২ কাটাব জীবন।


মেঘে মেঘে বেলা বাড়বে, ধনে পুত্রে লক্ষ্মী লোকসান
লোকাসান পুষিয়ে তুমি রাঁধবে মায়া প্রপন্ঞ্চ ব্যন্জ্ঞন
পাগলী, তোমার সঙ্গে দশকর্ম জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে দিবানিদ্রা কাটাব জীবন।
পাগলী, তোমার সঙ্গে ঝোলভাত জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে মাংসরুটি কাটাব জীবন
পাগলী, তোমার সঙ্গে নিরক্ষর জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে চার অক্ষর কাটাব জীবন।
পাগলী, তোমার সঙ্গে বই দেখব প্যারামাউন্ট হলে
মাঝে মাঝে মুখ বদলে একাডেমি রবীন্দ্রসদন
পাগলী, তোমার সঙ্গে নাইট্যশালা জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে কলাকেন্দ্র কাটাব জীবন।

পাগলী, তোমার সঙ্গে বাবুঘাট জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে দেশপ্রিয় কাটাব জীবন
পাগলী, তোমার সঙ্গে সদা সত্য জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে ‘কী মিথ্যুক’ কাটাব জীবন।
এক হাতে উপায় করব, দুহাতে উড়িয়ে দেবে তুমি
রেস খেলব জুয়া ধরব ধারে কাটাব সহস্র রকম
লটারি, তোমার সঙ্গে ধনলক্ষ্মী জীবন কাটাব
লটারি, তোমার সঙ্গে মেঘধন কাটাব জীবন।
দেখতে দেখতে পুজো আসবে, দুনিয়া চিত্‍কার করবে সেল
দোকানে দোকানে খুঁজব রূপসাগরে অরূপরতন
পাগলী, তোমার সঙ্গে পুজোসংখ্যা জীবন কাটাব
পাগলী, তোমার সঙ্গে রিডাকশনে কাটাব জীবন।
ভালোবাসার সংজ্ঞা – রফিক আজাদ
ভালোবাসা মানে দুজনের পাগলামি,
পরস্পরকে হৃদয়ের কাছে টানা;
ভালোবাসা মানে জীবনের ঝুঁকি নেয়া,
বিরহ-বালুতে খালিপায়ে হাঁটাহাঁটি;
ভালোবাসা মানে একে অপরের প্রতি
খুব করে ঝুঁকে থাকা;
ভালোবাসা মানে ব্যাপক বৃষ্টি, বৃষ্টির একটানা
ভিতরে-বাহিরে দুজনের হেঁটে যাওয়া;
ভালোবাসা মানে ঠাণ্ডা কফির পেয়ালা সামনে
অবিরল কথা বলা;
ভালোবাসা মানে শেষ হয়ে-যাওয়া কথার পরেও
মুখোমুখি বসে থাকা।

প্রেমের কবিতার শেষ কথা

আশা করছি ভালোবাসায় মাখানো এই কবিতাগুলি আপনাদের এল লেগেছে। ভালো লাগলে ভালোবাসার মানুষ অথবা প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন। প্রেমের কবিতাগুলো এবং ভালোবাসার কবিতাগুলো বিভিন্ন জায়গা থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। বেশিরভাগ ফেসবুক থেকে আমরা সংগ্রহ করেছি। যদি কোন ভুল ত্রুটি থেকে থাকে তাহলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। 

Previous articleনগদ একাউন্ট দেখার নিয়ম সমূহ ২০২১
Next articleউঠানে বাবার লাশ, পাশে ৫ সন্তান ব্যস্ত সম্পত্তির ভাগ নিয়ে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here