সরকারি অনুদান পাওয়ার উপায়সমুহ ২০২২

সরকারি অনুদান পাওয়ার উপায়সমুহ ২০২২

সরকারি অনুদান ২০২২ঃ করোনার সময়ে সরকার শুধুমাত্র দরিদ্র বা দরিদ্র সীমার নিচের থাকা মানুষ বা নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষের জন্য চালু করেছে সরকারি তহবিল থেকে সরকারি অনুদান। সরকারি অনুদান পাওয়ার উপায়সমুহ নিয়ে আলোচনা করব আজকের পোস্টে । আরও থাকছে করোনার/ওমিক্রণ সরকারি অনুদান কিভাবে পাবো এই নিয়ে বিস্তারিত।

সরকারি অনুদান ২০২২

২০২১-২০২২ অর্থ বছরে পরিচালন বাজেটে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিশেষ মঞ্জুরি হিসেবে বরাদ্দকৃত অর্থ উপযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে বিতরণের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে “শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুদান প্রদানের জন্য অনুসরণীয় নীতিমালা (সংশোধিত-২০২০)” জারি করা হয়েছে। নীতিমালাটি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস), বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, সকল জেলা প্রশাসক ও জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে বিতরণসহ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে (www.shed.gov.bd) দেয়া হয়েছে।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সরকারি অনুদান নীতিমালা

এতদ্বারা সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে পরিচালন বাজেটে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য বিশেষ মঞ্জুরি হিসেবে বরাদ্দকৃত অর্থ উপযুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে স্বচ্ছ ও সুষ্ঠুভাবে বিতরণের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে “শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুদান প্রদানের জন্য অনুসরণীয় নীতিমালা (সংশোধিত-২০২০)” জারি করা হয়েছে। নীতিমালাটি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো (ব্যানবেইস), বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর, সকল জেলা প্রশাসক ও জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে বিতরণসহ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে (www.shed.gov.bd) দেয়া হয়েছে। উক্ত নীতিমালা অনুযায়ী নিম্নে বর্ণিত শর্তে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষক-কর্মচারী এবং ছাত্র-ছাত্রীদের নিকট হতে আবেদন আহবান করা যাচ্ছে: নিচে আবেদন করার বাটন থেকে চাইলে সরকারি অনুদানের জন্য আপনি আবেদন করতে পারেন।

১.২০২১-২০২২ ভিজিডি চক্রে অন্তর্ভূক্তির আবেদন

২.অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদন

৩.ইন্টারনেট সংযোগের মডেম ও আনুষাঙ্গিক ব্যয় বাবদ এককালীন ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা উত্তোলনের আবেদন

৪.কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল হতে ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদন

৫.খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযােদ্ধাদের (বীর উত্তম, বীর বিক্রম এবং বীর প্রতীক) রাষ্ট্রীয় সম্মানী ভাতা প্রদান

৬.দারিদ্র মা’র জন্য মাতৃত্বকাল ভাতা মঞ্জুরীর আবেদনপত্র

৭.নতুন ভাতা চালুর বিষয়ে মন্ত্রণালয়ে মতামত প্রদান ও অনুমােদনে চেয়ে পত্র প্রেরণ

৮.নতুন ভারত – বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযোদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিমের আওতায় ছাত্রবৃত্তি

৯.প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধার দাফন খরচ প্রদান

১০.বয়স্ক ভাতা মঞ্জুরির আবেদনপত্র

১১.বিধবা/স্বামী পরিত্যক্তা দুঃস্থ মহিলাদের ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদন

১২.বীর মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদন

১৩.ভাতাভোগী মৃত্যুবরণ করলে উত্তরাধিকারী নির্ধারণ/পুনঃনির্ধারণ

১৪.মহিলা ও শিশু সাহায্য তহবিল হতে সাহায্যের আবেদন

১৫.মহিলাদের আত্ম-কর্মসংস্থানের জন্য ক্ষুদ্রঋণের আবেদন

১৬.মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তহবিল থেকে চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রাপ্তি

১৭.মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল হতে প্রাপ্ত আর্থিক অনুদানের চেক উত্তোলনের আবেদন

১৮.মাননীয় মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রী/উপমন্ত্রীর সেচ্ছাধীন তহবিলের অর্থ মঞ্জুরি

১৯.মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা মঞ্জুরীর জন্য আবেদনপত্র

২০.মৃতের দাফন/সৎকার কাজের জন্য আর্থিক সাহায্য প্রাপ্তির আবেদন

সরকারি অনুদান

বিকাশে সরকারি অনুদান কিভাবে পাবো

গতবছর ২০২০ সালে করোনা মহামারীর কারণে যে সকল নিম্নআয়ের পরিবার আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত এবং কর্মহীন হয়ে পড়েছিল তাদেরকে সহায়তার জন্য ‘নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান’ কর্মসূচি চালু করা হয়েছিল। ২০২০ সালে করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্নআয়ের পরিবারকে পরিবারপ্রতি ২,৫০০ টাকা করে ৮৮০ কোটি টাকা আর্থিক সহায়তা সরাসরি উপকারভোগীর মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে বা ব্যাংক একাউন্টে প্রদান করা হয়েছিল। এর ধারাবাহিকতায় চলমান করোনা মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত ৩৫ লাখ নিম্নআয়ের পরিবারকে পরিবার প্রতি ২,৫০০ টাকা করে মোট ৮৮০ কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।

সরকারি অনুদানের ২৫০০ টাকা শুধুমাত্র দরিদ্র বা দরিদ্র সীমার নিচের থাকা মানুষ বা নিম্নবিত্ত শ্রেণীর মানুষেরা পেয়ে থাকবেন । নিচের Screenshot গুলো দেখুন । যাদের ফোনে এই SMS আসবে তারা টাকা পেয়েছেন । তবে এখানে একটি বিষয় আছে তাও জানাচ্ছি ।

 
বিকাশে সরকারি অনুদান
বিকাশে সরকারি অনুদান

অনুদানের টাকা যদি বিকাশ/রকেট/নগদের ব্যালেন্স চেক করে না পান, তবে SMS পাওয়ার ২৪ ঘন্টা পর আবার ব‍্যালেন্স চেক করুন, আশা করি এবার ২৫০০ টাকা পেয়ে যাবেন । যদি বিকাশ একাউন্ট খোলা না থাকে, তবে আপনার বাসার আশে পাশে থাকা বিকাশ বা রকেট বা নগদের এজেন্টের দোকানে গিয়ে তাদের কাছ হতে একাউন্ট খুলে দিতে পারেন । এক্ষেত্রে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নিয়ে গেলে একাউন্ট খুলতে পারবেন ।

Related Articles

5 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button